হাত কাটা পিক, ছবি, ফটো, পিকচার (ছেলে ও মেয়েদের আসল ব্লেড দিয়ে হাত কাটা Pic)

আপনি কি আপনার প্রেমিক বা প্রেমিকাকে ইমপ্রেস করার জন্য নিজের হাত কাটতে চান? তাহলে এখন আর নিজের হাত কেটে রক্ত বের করার কোন প্রয়োজন নাই। কারণ আমরা আজকে এমন উপায় নিয়ে আসলাম যেখানে আপনার নিজের হাতে ব্লেড দিয়ে কেটে ক্ষতবিক্ষত করতে হবে না।

আজ আপনাদের মাঝে নিয়ে আসলাম অদ্ভুত কিছু হাত কাটার ছবি এবং লেখা। এই ছবি দিয়ে আপনি কিভাবে আপনার প্রিয় দুুবর্ল করবেন? তা তুলে ধরবো।

আপনার প্রিয় মানুষ কে বুঝাবেন যে আপনি তার জন্য হাত কেটেছেন এবং তাকে আপনার ভালবাসায় পাগল করে ফেলবেন। সে একটা সময় ঠিকই আপনার ওপর দুর্বল হয়ে পড়বে এবং ভালোবাসতে শুরু করবে। আমরা আমাদের ওয়েব সাইটে সেই সব ছবি গুলো আপনাদের জন্য তুলে ধরলাম৷

কেন ছেলে মেয়েরা হাত কাটে

ছেলে মেয়েরা যখন ভালোবাসায় অনেক আবেগের মধ্যে পড়ে যায়। তখন হাত কাটে, বিভিন্ন ধরনের ঘুমের ওষুধ খেয়ে তারা ভালোবাসার মানুষটিকে বোঝানোর চেষ্টা করে যে তাকে তারা অনেক ভালোবাসে।

কিন্তু এটা যে খুব বড় বোকামি, এটা তারা কখনো ভাবে না।
হাত কেটে রক্ত বের করে, নানা রকম এর নেশা করে কনো লাভ নাই রে ভাই। ভাই ও বোনেরা
তোমাদের বলি তোমরা এই সব থেকে দুরে থাকো।

তোমরা নিজেরা আর হাত কাটবে না

নিজের হাত না কেটে আবার কিভাবে বোঝাবো যে আমি হাত কেটেছি? বর্তমানে সে নিয়ে আর চিন্তার কোন কারন নাই। কারণ চিন্তার দিন শেষ।

ইন্টারনেট তোমাদের সে সমস্যার সমাধান করে দিয়েছে। ইন্টারনেট থেকে তুমি যে কোন অক্ষর দিয়ে হাত কাটার ছবি ডাউনলোড করে তা দিয়ে তোমার প্রিয়জনকে ইমপ্রেস করতে পারো।

আমি তোমাদের জন্য নিয়ে এসেছি কিছু
অরজিনাল হাত কাটার ছবি ও পিক photo
যা দিয়ে তোমরা তোমার ভালোবাসার মানুষকে বোঝাতে পারবে তুমি হাত কেটেছো তার জন্য।

ফ্রিতে ডাইলোড করে নিন হাত কাটার ছবি

হাত কাটা পিক, ছবি, ফটো, পিকচার

নিচে হাত কাটার কিছু অরজিনাল ছবি দেওয়া হলো। তোমরা তা ডাইনলোড করে তোমাদের ফোনে সংরক্ষিত করে রাখতে পারো।
তা তোমার ভালোবাসার মানুষ কে দিতে পারো।

হাত না কেটে কি ভাবে প্রিয়তমা কে দুর্বল করবেন

হাত না কেটে ও আপনি প্রিয়তমাকে বোকা বানাতে পারেন, মেডিকেল থেকে ব্যান্ডেজ এর কাপড় ও হাত পা কেটে গেলে লালচে একটি মেডিসিন দেয়া হয় রক্তের মত সেটি জোগাড় করে আপনি অভিনয় করতে পারেন এবং ছবি তুলে আপনার প্রিয় মানুষকে দিয়ে বোকা বানাতে পারেন সত্যি কথা বলতে কি আমি ও এমন টা করেছি স্কুল জীবনে আপনার ট্রাই করে দেখতে পারেন।

ভালোবাসার জন্য হাতকাটা বেন্ডেজ ছবি

অনেককে দেখা যায় নিজের হাত কেটে হাসপাতালে গিয়ে ব্যান্ডেজ করতে। এবং ব্যান্ডেজ করা ছবি ফেসবুকে আপলোড করতে। এগুলো মেয়েদের মন দুর্বল করতে অনেক সাহায্য করে। পক্ষান্তরে অনেক মানুষ আছে যারা এগুলোকে বাড়াবাড়ি বলে মনে করে। এবং এ ধরনের আত্মঘাতী মূলক কর্মকান্ড মোটেই পছন্দ করেনা।

আমরা উভয় পক্ষের লোকের জন্যই সমাধান নিয়ে এসেছি। এখন আর তোমাদের হাত কেটে ব্যান্ডেজ করা লাগবে না। কারণ কি?

কারণটা খুবই সোজা। আমাদের ওয়েবসাইটে এমন কিছু হাত কাটা ব্যান্ডেজ এর ছবি আপলোড করা হয়েছে যেগুলো একদমই অরিজিনাল। এগুলো দেখে কেউ বুঝতে পারবে না তোমার হাত নাকি অন্য কারো।

নিজে ভালোবাসার জন্য হাত কাটা কিছু ব্যান্ডেজ এর ছবি দেওয়া হল। তোমরা খুব তাড়াতাড়ি ছবিগুলো ডাউনলোড করে রাখ। তোমাদের প্রিয় মানুষের ভালোবাসা অনেকগুলি নেয়ার জন্য।

হাত কাটা পিক Download

হাত কাটার ছবি ফেসবুকে আপলোড করলে যে বিপত্তি বাধে তা হলো গায়ের রং। কারণ তুমি যে ছবিটা ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করে আপলোড করেছে সেটি অবশ্য তোমার গায়ের রঙের সাথে মিলতে হবে। তাছাড়া তুমি ধরা খেয়ে যাবে।

হাত কাটা পিক Download

সে ক্ষেত্রে তোমার করনি এভাবে ডাউনলোডকৃত ছবির সাথে তোমার গায়ের রঙ মিলিয়ে না। আমরা চাই না তুমি কখনো ধরা পড়ে যাও।

নিচের হাত কাটা pic গুলি ডাইনলোড করে নাও।

হাত কাটা pic তোমাদের ভালো লাগলে ফেসবুকে শেয়ার করতে পারো।

হাতের ওপরে প্রিয়তমার বা প্রিয় মানুষটির
অক্ষরের হাতকাটা ছবি নিচে তোমাদের সু্ুবিধার জন্য দেওয়া হলো।

মেয়ে মানুষের হাত কাটা ছবি পিক

ভালোবাসা ভেঙে গেলে কেন সেই ছেলেটি বা মেয়েটি হাত কাটে এই ভালোবােসা টি কি ছেলে বা মেয়েগুলো কি বোঝো না বুজে এই রকম করে।

যুগে যুগে ভালোবাসা ছিলো এবং থাকবে এই রকম পাগলামি ও থেকে যাবে চিরকাল।
সবার উদ্দেশ্যে কিছু কথা এই পিক গুলো দিয়ে কেউ খারাপ কোন কিছু করবেন না। এগুলো শুধু আপনাদের জন্য দিয়েছি কারণ আপনাদের যেন হাত না কেটে কষ্ট না করে প্রিয়তমাকে খুশি রাখতে পারেন।

 

কিভাবে হাত না কেটে বোঝাবেন যে হাত কেটেছেন

আমি স্কুল লাইফে বিভিন্নভাবে হাত কাটতাম প্রথমে ব্লেড দিয়ে তারপর সেই রক্ত দিয়ে চিঠি লিখতাম কাগজে একটা সময় আর ব্লেড দিয়ে হাত কাটতাম না পরে লাল রং দিয়ে তারপর ব্যান্ডেজ করে আমার প্রেমিকাকে দেখাতাম তার জন্য হাত কাঁটছে। আসলে সেই সময় গুলো কখনো ভুলে যাওয়ার নয়।

কিন্তু বর্তমানে এখন আর তেমন করেনা। কারণ আমরা অনেক বেশি স্বাস্থ্যসচেতন হয়েছি। এবং এটা অনুধাবন করতে পেরেছি অন্য কোন মেয়ের জন্য পিতামাতাকে কষ্ট দেওয়ার কোন মানে নেই। সে কারণেই আপনাদের উচিত হবে না নিজের হাত কাটা।

অক্ষর দিয়ে লেখা হাত কাটা পিক

অনেকেই প্রিয়জনের নামের প্রথম অক্ষর হাত কেটে লিখে। এটা খুবই একটি চালাকি কাজ। কারণ মনে করেন আপনি রত্না নামের কাউকে ভালোবাসেন। স্বভাবতই আপনি চাইবেন আপনার হাত কেটে R অক্ষরটি লিখতে। এটা কাঙ্খিত ব্যক্তিটি বুঝবে তার জন্যই আপনি হাত কেটেছেন।

হাত কাটা পিক, ছবি, ফটো, পিকচার

ইন্টারনেটে অনেক কে দেখে দেখতে পাওয়া যায় যারা প্রিয়জনের নামের অক্ষর লিখে হাত কাটা পিক সার্চ করতে। তাদের সুবিধার্থে আমরা ২৬ টি বর্ণের হাত কাটা ছবি আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি।

হাত কাটা পিক A B C D E F G H I J K L M N O P Q R S T U V W X Y Z

ভালবাসার জন্য হাত কাটা বেন্ডেজ ছবি

আমাদের ওয়েবসাইট ঘুরে দেখতে পারেন এবং নিয়মিত ভিজিট করে পাশে থাকবেন।

K অক্ষর দিয়ে হাত কাটা পিক

 

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Related Articles

Back to top button
Close
Close