অনলাইনে ইনকামের সহজ উপায় – মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করুন

আপনারা অনেকেই জানেন, মানুষ অনলাইনের মাধ্যমে হাজার হাজার টাকা আয় করছে। অনেকেই জানেন না কিভাবে কাজ করলে ইন্টারনেটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যায়। অনেকের আছে আবার বিষয়টা নতুন। অনেকেই আছেন, যারা বিশ্বাসই করেন না যে অনলাইনের মাধ্যমেও টাকা আয় করা যায়।

সকলের জন্যই আজকের এই লেখাটি। আজকে আমরা অনলাইনে উপার্জন সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। প্রথম অংশে আমরা বিভিন্ন উপায়ে আয়ের বর্ণনা দিবো এবং পরিশেষে কতগুলো প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেস্টা করবো। তাহলে চলুন মূল আলোচনা শুরু করা যাক।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম

আপনি হয়তো শুনে থাকবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যায়। কিন্তু আসলে জানেন না কিভাবে, কোন সিস্টেমে টাকা ইনকাম করতে হবে। আজকে আমরা অনেকগুলো প্রশ্নের উত্তর দিব।

আমাদের লেখা পড়ার মাধ্যমে আপনি শিখতে পারবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা ইনকাম। এবং আমরা আপনাকে ইনকামের স্ক্রিনশট দিয়ে প্রমাণ করে দিবো আসলেই কিভাবে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

তাহলে আর দেরি না করে চলুন আলোচনা শুরু করা যাক। প্রথমে আমরা দেখব কোন কোন প্লাটফর্ম থেকে টাকা ইনকাম করা যায়।

১/ গুগল এডসেন্স

২/ ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল

৩/ Ezoic

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম

আপনি গুগল এডসেন্স থেকে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করিয়ে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এজন্য অবশ্যই আপনার একটি নিজস্ব ওয়েবসাইট থাকতে হবে। আর ওয়েবসাইটে থাকা লাগবে কোয়ালিটি কন্টেন্ট।

আমরা প্রায়শই বিভিন্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করে থাকি। এবং সেসব ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন দেখতে পাই। আমরা কি কখনো ভেবে দেখেছি বিজ্ঞাপনগুলো কারা দেয় এবং কারা টাকা পায়?

বিজ্ঞাপনগুলো গুগোল আপনার ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে। এ জন্য প্রতিটি বিজ্ঞাপনের জন্য গুগল ৩২% টাকা রেখে দেয়। এবং বাকি ৬৮% টাকা ওয়েবসাইটের মালিককে দেয়।

গুগল বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের জন্য কোন টাকা পেমেন্ট করে না। শুধুমাত্র প্রদর্শিত বিজ্ঞাপন এর উপরে ক্লিক করলেই আপনি টাকা পাবেন। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে আপনার ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত বিজ্ঞাপনে আপনি নিজে ক্লিক করতে পারবেন না। সুতরাং অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর থাকতে হবে।

এজন্য প্রতিদিন নতুন নতুন কনটেন্ট আপলোড করতে পারেন। আর খুব বেশি টাকা ইনকাম করার জন্য অবশ্যই ওয়েবসাইটকে গুগোল সার্চ রেজাল্ট পেজে রেংক করাতে হবে। এজন্য আপনি অন পেজ এবং অফ পেজ এসইও করতে পারেন।

ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম

আমরা ফেসবুক ব্যবহার করতে করতে অনেক সময় এমন নিউজ লিংক পায় যে গুলোতে ক্লিক করলে সাথে সাথে ওপেন হয়ে যায়। সে গুলোকে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল বলা হয়। ফেসবুক কোয়ালিটি সম্পন্ন ওয়েবসাইটে ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ইনকামের সুযোগ দেয়। এজন্য প্রথমে আপনাকে সাইটটি ফেসবুকের কাছে অ্যাপ্রুভ করে নিতে হবে।

এরপর নিয়মিত কনটেন্ট পোস্ট করতে হবে। সেগুলো ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার গ্রাহকের কাছে পৌঁছাবে। পাঠক যখন আপনার প্রকাশিত নিউজ পড়বে তখন কতগুলো বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হবে। ঠিক গুগল এডসেন্স এর মতই এসব বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে ফেসবুক টাকা ইনকাম করে।

সে ইনকামের লভ্যাংশ থেকে ফেসবুক আপনার শেয়ার আপনাকে দিবে। এক্ষেত্রে ন্যূনতম পেমেন্ট লিমিট একশত ডলার। অর্থাৎ ফেসবুক থেকে টাকা পেতে হলে অবশ্যই 100 ডলার ইনকাম করতে হবে। বাংলাদেশের অনেকেই ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করছে।

ইউটিউব এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম

ফেসবুকের মাধ্যমে টাকা ইনকাম

বর্তমানে ফেসবুক পেজের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যাচ্ছে। এ সিস্টেমটি মূলত ইউটিউব এর মতোই কাজ করে। এজন্য আপনাকে যা যা জানা লাগবে তা হল-

১/ কিসের জন্য আপনি টাকা পাবেন

২/ ফেসবুক কেন আপনাকে টাকা দিবে

৩/ কি কি কারনে টাকা পাবেন না

৪/ ফেসবুক থেকে আসলেই কত টাকা ইনকাম করা সম্ভব

৫/ ফেসবুক থেকে ইনকাম করে টাকা কিভাবে পেমেন্ট পাবেন।

ভিডিও তৈরি করে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম

ইউটিউবে যেমন ভিডিও তৈরি করে আপলোড করলে তার ভিউ এবং অ্যাড ক্লিকের ওপর নির্ভর করে আপনি টাকা পান ঠিক তেমনভাবে ফেসবুক থেকেও ইনকাম করা যায়। এজন্য ভিডিও গুলো অবশ্যই ফেসবুক পেজ থেকে আপলোড করতে হবে। অন্যের আপলোডকৃত ভিডিও ডাউনলোড করে আপলোড করলে হবেনা।

এবং ভিডিওগুলো পর্নোগ্রাফিক হলে ইনকাম করা যাবে না।

আপনার উপার্জিত টাকা আপনি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি পেমেন্ট নিতে পারবেন। এজন্য ফেসবুক পেজে গিয়ে পেমেন্ট এর জায়গায় আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ডিটেইলস দেওয়া লাগবে।

100 ডলার ইনকাম করলে পরবর্তী মাসে তা ব্যাংক একাউন্টে জমা হবে। গুগল এডসেন্স এর মতই ফেসবুক 100 ডলারের কমে পেমেন্ট করে না।

Updated: August 2, 2020 — 10:48 am

The Author

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *