মোবাইলে অভ্র কিবোর্ড বিভিন্ন অক্ষর লেখার নিয়ম – সকল যুক্তবর্ণ লেখা শিখুন

আপনি কি মোবাইলের যুক্তবর্ণ লিখতে হিমশিম খাচ্ছেন? এ অবস্থা থেকে উত্তরণের উপায় খুঁজে পাচ্ছেন না? তাহলে এখনি আপনার মোবাইলের ডাক্তার দেখানো দরকার।

আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, মোবাইলের ডাক্তার আবার কোথায় পাওয়া যায়? বিষয়টা আসলে তেমন কিছুই না। এজন্য আপনাকে বেশি দূর যাওয়ার প্রয়োজন নেই।

আপনার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আপনি মোবাইলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে পারবেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। প্রিয় পাঠক, আমাদের আজকের লেখার বিষয়বস্তু মোবাইলে অভ্র কিবোর্ড ব্যবহার করে বিভিন্ন যুক্তবর্ণ কিভাবে নির্ভুল ভাবে লেখা যায়। তাহলে অপ্রাসঙ্গিক কথা না বলে চলুন মূল আলোচনায় শুরু করা যাক।

যে অক্ষরগুলো লিখতে সমস্যা হয়

মুরুব্বি মানুষ যারা মোবাইল ব্যবহার শুরু করছেন তাদের ক্ষেত্রে বাংলা লেখায় কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। বিশেষ করে যুক্তবর্ণ গুলো লিখতে তাদেরকে অনেক বেগ পেতে হচ্ছে। সে সমস্যা উত্তরণের জন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আপনাদের শুদ্ধভাবে বাংলা লিখা শিখাবো।

বেশ কিছু অক্ষর রয়েছে যেগুলো মোবাইলে লিখতে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। আমরা প্রথমে তেমন কিছু অক্ষর এখানে তুলে ধরব।

১/ বিভিন্ন অক্ষরের সাথে রেফ দেওয়া

২/ যুক্তাক্ষর

৩/ চন্দ্রবিন্দু

৪/ ৎ

৫/ হৃদয় বানানের রি-কার

৬/ রেপ ব্যবহার করে কিভাবে

এখন আমরা এসকল জটিল অক্ষর গুলো লেখার সহজ সমাধান আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব।

অভ্রতে রেফ লেখার নিয়ম

যারা বাংলা কিবোর্ডে রেফ লিখতে পারেন না তারা নিচের নিয়ম অনুসরন করে যে কোন অক্ষরের উপরে রেফ দিতে পারেন।

যেমন মনে করুন আপনি দুর্বল বানান লিখবেন, তাহলে আপনাকে প্রথমে দু, এরপর র+্+ব (অর্থাৎ র যোগ হসন্ত যোগ পরবর্তী অক্ষর) এবং সবশেষে ল লিখতে হবে।

বা এভাবে চেষ্টা করতে পারেন, Durbol

অর্থাৎ অভ্রতে সরাসরি ইংরেজি কিবোর্ড এ আপনাকে বানান করে লিখতে হবে।

রেফ লেখার নিয়ম বিজয়

পূর্বে দেখানো পদ্ধতি অবলম্বন করেই আপনি বিজয় কিবোর্ডে রেফ লিখতে পারবেন। এজন্য বেশি কিছু করা লাগবে না। আমরা এখানে যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করব তা নিচে তুলে ধরা হলো।

  1. ইউনিকোডে রেফ লেখার নিয়ম
  2. হৃদয় বানান লেখার নিয়ম
  3. অভ্র যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম
  4. বাংলা রেপ লেখার নিয়ম

অভ্রতে যুক্তাক্ষর লেখার নিয়ম

একটার পর একটা ইংরেজি শব্দ লিখলে আপনার যুক্তক্ষর আপনা আপনি হয়ে যাবে। যেমন যদি আপনি ক্ষতি বানান লিখতে চান তাহলে আপনাকে kkhoTi লিখতে হবে।

আবার আপনি যদি, ক্ষমা লিখতে চান তাহলে আপনাকে টাইপ করতে হবে kkhoma.

চন্দ্রবিন্দু লেখার নিয়ম

চন্দ্রবিন্দু না থাকিলে চাঁদ বানান ভুল হবে। এজন্য চাঁদ বানান লিখতে অবশ্যই চন্দ্রবিন্দু লেখা জানা প্রয়োজন। এখন আমরা আপনাকে শিখাবো কিভাবে কোন শব্দ বা বর্ণের উপরে চন্দ্রবিন্দু লিখতে হয়।

Caqqd এটা লিখলে চাঁদ লিখা হয়ে যাবে। এরকম আজগুবি শব্দ লিখে যদি চাঁদ লেখা হয় এর চাইতে মর্মান্তিক আর কি হতে পারে। এই বিরক্তিকর কিবোর্ড এর চাইতে বিজয় ভালো।

অভ্র কিবোর্ড লেআউট

নিচে আপনার জন্য টিউটোরিয়াল দেয়া হলেও যেখান থেকে আপনি বিভিন্ন অক্ষর লেখার নিয়ম দেখে নিতে পারবেন।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Related Articles

Back to top button
Close
Close