ঈ‌ অক্ষর দিয়ে শিশুদের নাম – আধুনিক বাংলা নামের তালিকা অর্থসহ

একটি মেয়ে যখন মা হতে যাই তখন পরিবারের সবাই খুশিতে মেতে ওঠে। সবাই অনেক প্রতীক্ষা নিয়ে থাকে সেই শিশুটির অপেক্ষায়। নানা রকম তোরজোর শুরু হয় তাই পরিবারের সেই শিশুকে নিয়ে।তখন সবাই শিশু টির মা এর ওপর যত্ন নিতে শুরু করে। শিশুটি যেন ভালোভাবে বড় হয়ে ওঠে সেটার দিকে সবাই খেয়াল রাখে। সেই শিশুটি যেন ভালোভাবে জন্ম গ্রহণ করতে পারে পরিবারের সবাই সেদিকটি বিশেষভাবে নজর রাখে। এবং শিশুটি জন্মগ্রহণের পর সবাই তাকে নিয়ে আনন্দে মেতে ওঠে।

 হয়েছে কিনা সেটার দিকে সবাই খেয়াল রাখে। সেই শিশুটিকে নিয়ে সবাই আনন্দে মেতে ওঠে সেই শিশুটি হয়ে ওঠে পরিবারের নয়নমণি সবার আদরের। সবাই মিলে তখন চেষ্টা করতে থাকে একটি সুন্দর নামের। শিশুটির না মেয়ে হবে শিশুটির পরিচয়। পরিবারের ছোট্ট সোনামণির জন্য সবাই চেষ্টা করে একটি আনকমন নাম রাখার। যে নামটি হবে সুন্দর অর্থসহ।পরিবারের সবাই যার যার নাম নিয়ে চলে আসবে বাবামার কাছে শিশুটির নাম রাখার জন্য।

কিন্তু বাবামা চাইবে যেন তাদের নামের সাথেই শিশুটির নামটি রাখা হয়। সবচেয়ে সুন্দর একটি নাম যেন সেই ছোট্ট সোনামণিদের রাখা হয়। যে নামটি আর কারো হবে না শুধু আপনার শিশুটি হবে। তাই সুন্দর সুন্দর অর্থসহ নাম খুঁজতে আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটে চলে আসুন।আপনার শিশুটির সবচেয়ে সুন্দর নাম।

ঈ অক্ষর দিয়ে অর্থসহ শিশুদের নাম

নাম দিয়ে হবে একটি ছোট্ট শিশুর পরিচয়। পরিবারের সবাই সেই ছোট্ট শিশুটিকে সুন্দর নাম ধরে ডাকবে। নামটি বেশ অর্থসহ হলে শিশুটি বড় হবার পরে সবাইকে তার নামের অর্থটি বলতে পারবে। এবং শিশুটি খুবই আনন্দিত হবে তার নামের অর্থটি জানতে পারলে। একটি শিশুর নাম যদি ভালো রাখা যায় এবং অভিনব রাখা যায় তাহলেএকটি অন্যরকম অভিনব ব্যাপার জন্ম নিতে পারে। সে তার নামটি সবার থেকে আলাদা ভেবে খুবই আনন্দিত হবে। একটি শিশুকে বড় করে তোলার পেছনে বাবামায়ের খুবই বড় অবদান রয়েছে।

শিশুদের সুন্দর নামের পাশাপাশি সুন্দর ভবিষ্যত গড়ে ওঠার পেছনে বাবামায়ের অনেক দায়িত্ব রয়েছে।ভবিষ্যৎ সুন্দর করে গড়ে তোলার চেষ্টায় থাকে। তাই আপনারা আপনাদের শিশুদের জন্য সুন্দর সুন্দর নাম পেতে আমাদের এই ওয়েবসাইটটিতে দেখতে পারেন এবং এখান থেকে নাম পছন্দ করতে পারেন আপনার শিশুদের জন্য।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button