ডিগ্রি ব্যতিক্রম সাজেশন ২০১৯ (১০০% কমন)

ডিগ্রী ব্যতিক্রম সাজেশন ২০২০ ডাউনলোড

ব্যতিক্রম সাজেশন কি?

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন বছর মেয়াদী ডিগ্রি প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ব্যতিক্রম সিরিজের সাজেশন প্রকাশিত হয়। ব্যতিক্রম সাজেশনটির গুণগতমান এর বৈশিষ্ট্যে।বিষয় ভিত্তিক অধ্যাপক মন্ডলী দ্বারা সম্পাদিত “ব্যতিক্রম” সাজেশন একটি পূর্ণাঙ্গ সাজেশন।

ব্যতিক্রম সাজেশন কেন গুরুত্বপূর্ণ?

সর্বাধিক ভালো ফলাফলের জন্য ব্যতিক্রম সাজেশন খুব নির্ভরযোগ্য। সাজেশনটি হুবহু অনুসরণ করলে 90 থেকে 100 শতাংশ কমন পড়ে। “ ব্যতিক্রম” সাজেশনটি ঢাকার অভিজাত কলেজ, ঢাকার বাহিরের স্বনামধন্য কলেজ এবং গুরুত্বপূর্ণ কোচিং সেন্টারে সাজেশন। এছাড়াও বিগত বছরের প্রশ্নপত্র ও টেস্ট পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের উপর ভিত্তি করে সাজেশনটি প্রণয়ন করা হয়েছে। “ ব্যতিক্রম” সাজেশনটির প্রশ্ন দেওয়া হয় কম অথচ কমন পড়ে বেশি। হ্যাঁ কিন্তু আর যার কারণে বাজারে অন্যান্য সাজেশন এর তুলনায় এই সাজেশনটির চাহিদাও বেশি।

ব্যতিক্রম সাজেশন ডিগ্রি প্রথম বর্ষ ২০১৯ (১০০% কমন)

যারা ডিগ্রি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী তারা খুবই চিন্তিত হয় তাদের পরীক্ষা নিয়ে। কারণ তারা প্রথমবারের মতো এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে যায়। তারা বুঝতে পারে না যে পড়বে এবং কিভাবে পড়ে খুব অল্প পরিশ্রমে ভালো ফলাফল লাভ করবে। অথবা পরীক্ষায় পড়ার পরও প্রশ্ন কমন পড়বে কিনা। সময় সংকীর্ণতার কারণে অনেক শিক্ষার্থীর সময় হয়ে ওঠে না সম্পূর্ণ বই পড়ার এবং বই পড়ে নোট তৈরি করার। এবং বাজারে একটি বইয়ের ওপরও সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করা যায় না। তাদের কথা মাথায় রেখে ব্যতিক্রম সাজেশনটি প্রস্তুত করা হয় অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী দ্বারা। আর তাই এটির উপর প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা আস্থা রাখতে পারে।

ব্যতিক্রম সাজেশন ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষ ২০১৯ (১০০% কমন)

যারা ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তাই ইতিপূর্বে জানি যে ব্যতিক্রম সাজেশন এর ওপর সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করা যায়। এটি বাজারে অন্যান্য বইয়ের তুলনায় অধিক কমনে আস্থাশীল।

ব্যতিক্রম সাজেশন ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষ ২০২০ (১০০% কমন)

যারা তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তাদের ক্ষেত্রে সে একই কথা যে সাজেশন বাজারে অন্যান্য বইয়ের তুলনায় অত্যন্ত নির্ভরযোগ্য। এখান থেকে প্রায় 90% থেকে 100% কমন আসে।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Related Articles

Back to top button
Close
Close