থ দিয়ে হিন্দু মেয়েদের আধুনিক নামের তালিকা অর্থসহ

ছোট বাচ্চাদের নামকরণ কাজটি অনেক আকর্ষণীয় ও আনন্দের কাজ মনে হলেও প্রকৃতপক্ষে কাজটা অনেক কঠিন। নির্বাচন নামকরণের ক্ষেত্রে অনেক দিক বিবেচনা করে নাম রাখা হয়। সেখানে খুব সহজেই একটি নাম বাছাই করা যায় না বরং নানা দিক বিবেচনা করে নাম রাখতে গিয়ে অনেক ঝক্কি ঝামেলায় পড়তে হয় পিতা-মাতা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের।

নামকরণের ক্ষেত্রে শুধু পিতা মাতা নয় বরং পরিবারের প্রতিটি সদস্যই চাই নতুন সদস্যের নাম সবার মনের মত হোক। সে কারণে সহজে নাম নির্ধারণ করা যায়। নাম নির্ধারণ করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার কারণ তার সারাটা জীবন এই নাম নেই পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে হয় এবং সারা পৃথিবীর মানুষ থাকে এই নামেই চিনতে পারে। নাম নির্ধারণে অনেকে গুরুত্ব দেয় না কিন্তু এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এবং একটি মানুষের সারা জীবনের ব্যাপার। এ কারণে পিতা-মাতা ও সন্তানের জন্য তাদের মনের মতো একটি পারফেক্ট নাম দেওয়ার জন্য অনেক চিন্তা ভাবনা করে এবং সময় ও শ্রম ব্যয় করে। শিশুর নামকরণ তাই যতটা সহজ মনে হয় অতটা সহজ কাজ নয়।

হিন্দু ধর্মের মেয়ে শিশুদের যখন নাম রাখা হয় তখন তারা বিভিন্ন রকম অনুষ্ঠান করে নাম রাখে এবং বেশিরভাগ সময় দেখা যায় যে হিন্দু ধর্মের মেয়ে শিশুদের নাম গুলো তাদের ধর্মের দেবীদের নাম অনুসারে হয়ে থাকে। যতই স্টাইলিশ নাম রাখুক না কেন তারা ধর্ম সম্পর্কিত কোনো না কোনো নাম রাখে। তবে জনপ্রিয় ট্রেন্ড হলো একের অধিক নাম রাখা।

সব ধর্মেই দেখা যায় যে ধর্মীয় প্রেক্ষাপট ও ধর্মীয় বিষয় সম্পর্কে সম্পর্কিত ব্যক্তি বর্গের নাম অনুসরণ করে বাচ্চার নাম রাখা হয়। মোটকথা সন্তানের একটি সুন্দর নাম দেওয়ার জন্য বাবা-মা কিংবা পরিবারের সদস্যদের জন্য আগ্রহ ও চেষ্টার কমতি থাকে না। কেননা একটি নাম কেবল মাত্র সাধারন কোন নাম নয় বরং জন্ম হতে মৃত্যু পর্যন্ত একটি মানুষের আইডেন্টি ও ব্যক্তিত্বের ধারক ও বাহক।

দুই ও তিন অক্ষরের নাম

দুই অক্ষর ও তিন অক্ষরের নাম গুলো সব জায়গাতেই খুব জনপ্রিয়। বেশিরভাগ সময় দেখা যায় দুই অক্ষর ও তিন অক্ষরের নাম গুলোই ঘুরে ফিরে মানুষদের পছন্দ হয়। রমজান ও অতিরিক্ত বড় না হয়ে যায় আবার উচ্চারণে অনেক কঠিন হয়ে যায় সেদিকে সবাই বিশেষ দৃষ্টি রাখে কেননা সবাই যদি ঠিকমত নাম উচ্চারণ করতে না পারে এবং নামের অর্থ দুর্বোধ্য হয় তাহলে কিছু সময় সেই ব্যক্তিকে বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যেতে হতে পারে। আবার কঠিন নাম লিখতে যেমন কঠিন আবার সব জায়গায় বলতে গেলেও কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। অনেক সময় দেখা যায় যে কেউ নামটি সোনার করে ঠিকমতো উচ্চারণ করতে পারল না তখন পরিস্থিতি অনেক বিব্রতকর হয়ে যায়।

দুই অক্ষর ও তিন অক্ষরের নাম বেশ জনপ্রিয় যেগুলো উচ্চারণ করতে সহজ ও শুনতেও শ্রুতি মধুর লাগে। নাম রাখতে গিয়ে নামের অর্থ বিশেষভাবে বিবেচনা করা হয়। শিশুর নাম যেন কোনোভাবেই নেগেটিভ বা খারাপ কোন অর্থ বহন না করে সেদিকে বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করা উচিত। কেননা এটা বিশ্বাস করা হয় যে নামের মধ্যে কোন খারাপ গুণাবলী ইঙ্গিত করা থাকলে ভবিষ্যতে সেই শিশুটির মধ্যেও খারাপ দিকগুলো ফুটে উঠতে পারে।

হিন্দু ধর্মে বিশ্বাস করা হয়ে থাকে যে খারাপ নামের অর্থ বহনকারী একটি মানুষ তার নিজের মধ্যে খারাপ গুণাবলী ধারণ করতে পারে আবার সে অন্যের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে এ কারণে হিন্দুধর্মে সুন্দর সুন্দর নাম যেগুলো পজেটিভ ভালো অর্থ গ্রহণ করে সেগুলো রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। অনেক পরিবারে দেখা যায় যে পরিবারের প্রতিটি সদস্যের নাম একই অক্ষর দিয়ে রাখা হয়েছে কিংবা বংশ-পরম্পরা অনুযায়ী বংশের প্রতিটি মেয়ে শিশুর নাম একই শব্দ দিয়ে শুরু হয়েছে। সে ক্ষেত্রে দেখা যায় যে সমজাতীয় অর্থ দিয়ে এতগুলো নাম নির্ধারণ বেশ কষ্টসাধ্য হয়ে যায়।

থ অক্ষর দিয়ে অনেকে নাম রাখতে চান তবে এই অক্ষরটি দিয়ে খুব বেশি সংখ্যক নাম নেই। তবু আমরা চেষ্টা করেছি আপনাদের সুবিধার্থে এই অক্ষরটি দিয়ে বেশ কিছু নাম অর্থসহ সংগ্রহ করতে সেগুলো আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করে পেতে পারেন। তাই যখনই আপনার প্রয়োজন হবে আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন আর বেছে নিন আপনার পছন্দের হিন্দু মেয়ে শিশুর জন্য থ অক্ষর দিয়ে কিছু অসাধারণ নাম যেগুলো অর্থসহ আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের সংগ্রহ করেছে শুধুমাত্র আপনাদের জন্য।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button