প্রপোজ করার রোমান্টিক কথা | পছন্দের মানুষকে প্রপোজ করার নিয়ম

পছন্দের মানুষকে প্রপোজ করতে চাচ্ছেন কিন্তু কিভাবে অ্যাপ্রচ করবেন তা বুঝতে পারছেন না? তাহলে আর চিন্তার কোন কারন নাই। কারণ আমরা নিয়ে আসলাম সমাধান। আমাদের এই লিখাটি পড়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে অনায়াসেই স্মার্টলি প্রিয়জনকে প্রপোজ করবেন।

প্রপোজ করার রোমান্টিক কথা

ছোট্ট এই জীবনে কাউকে ভালো লাগতেই পারে। ভালো লাগলে মনে বেশিখন তার চেপে রাখা দরকার নেই। এতে আপনার ভিতর ছটফটানির সৃষ্টি হবে। বুকে সাহস নিয়ে তার সামনে গিয়ে দাঁড়ান। তাকে আপনার মনের কথা বলে দিন। এখন প্রশ্ন হতে পারে যে, কি করে বললে আপনার প্রিয়তমা আপনার প্রতি অনেক খুশি হবে এবং আপনাকে গ্রহন করবেন। তার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে প্রপোজ করার রোমান্টিক কথা নিয়ে এই পোস্টটি করা হয়েছে।

যারা ব্যক্তিগত জীবনে কাউকে ভালোবেসে থাকেন বা পছন্দ করে থাকেন তারা তাদের পছন্দের মানুষকে বা ভালোবাসার মানুষকে কে সুন্দর ভাবে বলে দিন আপনার মনের অনুভূতির কথা। তার সামনে গিয়ে কাপাকাপি ব ইতঃস্তত বোধ না করে বুকে সাহস নিয়ে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে তাকে জানিয়ে দিন যে আপনি তার পাশে আজীবন থাকবে চান।

এখন আপনি বলতে পারেন যে ভাই বুকে সাহস থাকে তার সামনে গিয়ে সাহস হারিয়ে ফেলি। সেই মুহূর্তে আমার করনীয় কি আছে। আপনি সেই মুহূর্তে নিজের শক্তিকে হারাবেন না। নিজের মনের শক্তি দিয়ে আপনি আপনার প্রিয়তমা কে আপনার মনের কথা গুছিয়ে বলতে হবেই। কারণ আপনার যদি বার্স্ট এক্সপ্রেশন ভালো না হয় তাহলে আপনার প্রিয় তোমার আপনার প্রতি অনুরাগ নাও হতে পারে।

তার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে প্রপোজ করার রোমান্টিক কথা নিয়ে বিভিন্ন কথা রয়েছে। যদি নিজের মনের মাধুরী মিশিয়ে সুন্দরভাবে প্রিয়তমাকে আপনি আপনার মনের অনুভূতি কথা বলতে পারেন, তাহলে সেটাই হবে সবচাইতে ভালো বুদ্ধি। আর যদি বলেন যে আপনার সেই মুহূর্তে ইতঃস্তত বোধ কাজ করে তাহলে আপনি আগে থেকেই রোমান্টিক কথা মুখস্থ করে যেতে পারেন।

আপনার মুখস্থ করার কথাই প্রিয় তোমার সামনে সুন্দরভাবে বলে দিন। তাকে আশ্বস্ত করুন আপনি তাকে চিরদিন ভালবাসবেন এবং তার প্রতিটি মুহূর্তে তার পাশে থাকবেন। তাই আপনার প্রধান কাজ কি হবে আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে প্রপোজ করার রোমান্টিক কথা দেখে নেওয়া।

প্রপোজ করার মেসেজ

১/ মানুষ বলে, প্রথম দেখাতেই প্রেমে পড়ে গেছি। আমি কথাটি নিছকই উপমা ভাবতাম, আজ মানি কথাটি সত্য হয়ে যায় যখন প্রথম দেখার সেই মেয়েটি তোমার মতো কোনো পরী হয়। প্রথম দেখাতেই তুমি আমার পৃথিবীকে উল্টাপাল্টা করে দিয়েছো

২/ নাটোরের বনলতা সেন কেও হার মানায় তোমার সৌন্দর্য, স্বর্গের কোনো হুর যেনো মর্তে নেমে এসেছে। প্রথম দেখাতেই তোমার প্রেমে পড়েছি, তুমি এখন আমার কল্পনা বাস্তব সবটা জুড়ে আছো। তোমাকে সামনাসামনি বলতে পারিনি, তাই এখন বলছি ভালোবাসি তোমায়।

৩/ বিধাতা নাকি জোড়ায় জোড়ায় নারী পুরুষ সৃষ্টি করেছে, তোমাকে দেখে আমার মনে হয় তুমি শুধু আমার জন্যই বিধাতার হাতে সৃষ্টি হয়েছো। তোমার সৌন্দর্য, সুমধুর কন্ঠ আমায় পাগল করেছে। অনেক দিন চেষ্টা করেছি কিন্তু বলতে পারিনি। তোমার হাতটি ধরে সারাজীবন চলার অনুমতি পেতে পারি?

৪/ তোমার ওই মায়াবী মুখখানি আমার সর্বনাশ করেছে, ঠিকমতো ঘুমাতে দেয় না। কোনো কিছুতেই আর মন বসে না, শুধু বারবার তোমাকে দেখতে ইচ্ছা করে। আমি তোমার প্রেমে পাগল হয়ে গেছি, ভালোবাসি তোমায়। তুমি কি আমায় ভালোবাসায় ভরিয়ে দিবে?

৫/ আমি ঠিক গুছিয়ে কথা বলতে পারি না, তুমি আমাকে অগোছালো করে দিয়েছো। মন যেন এখন আর আমার কাছে থাকে না, তুমি চুরি করে নিয়েছো। তোমাকে দেখলেই হৃদযন্ত্রটি অস্থির হয়ে উঠে,কি করে বলি তোমায় অনেক অনেক ভালোবাসি।

৬/ সেদিন বসন্ত এসেছিলো হৃদয় মাঝে, যেদিন তোমার মতো সুন্দর, নিষ্পাপ গোলাপের দেখা পেয়েছিলাম। সেদিন কোকিলের কন্ঠ কানে শুনেছিলাম অসময়ে ,যেদিন ঝর্নার কলকল ধ্বনির মতো তোমার কন্ঠ কানে এসেছিলো। সেদিন বলতে পারিনি তোমায়, তুমি খুব সুন্দর। তোমার সৌন্দর্যের প্রেমে পড়িবো সখি বারেবারে।

৭/ ভালোবেসে সারাজীবন ভালোবাসায় বেঁধে রাখবো,যদি একটি বার সাড়া দাও। বিধাতাও কষ্ট পাবে যদি তুমি আমার না হও। জীবনে মরণে বেঁধে রাখিবো প্রিয়তমা জনম জনম ধরে, সখি যদি হাত দুটি বাড়াও।

৮/ জেগে থাকলে তোমার কল্পনাতে ডুবে থাকি, ঘুমন্ত আমি তোমায় স্বপ্নে দেখি। তোমাকে বারেবারে দেখতে চায় এমন, যদি অনুমতি দাও ঐ দুহাত ধরার সারাজীবন ভালোবাসায় বেঁধে রাখবো কথা দিলাম।

৯/ ভালোবাসার সংজ্ঞা আমার জানা নেই। যদি কাউকে দেখার জন্য বারবার মন আনচান করার নাম ভালোবাসা হয়, তবে আমি তোমাকে ভালোবাসি। যদি শয়নে স্বপনে তাঁকে নিয়েই হৃদয় মাঝে ছবি আঁকানোর নাম ভালোবাসা হয় তবে আমি তোমায় ভালোবাসি। যদি অনুমতি দাও, সারাজীবন ভালবাসতে চাই।

১০/ অনেক বার তোমার সামনে গেছি, সাহস করে বলতে পারিনি ভালোবাসি তোমায়। অনেক বার রাস্তার ঐ মোড়ের পাশে গোলাপ নিয়ে দাঁড়িয়ে থেকেছি কিন্তু সাহস হয়নি তোমাকে দেওয়ার। তাই আজ নিরুপায় হয়ে মেসেজেই লিখছি ভালোবাসি তোমায় প্রিয়তমা।

প্রপোজ করার ম্যাসেজ

ব্যক্তিগত জীবনে আমাদের কাউকে না কাউকে ভালো লেগে থাকে। ভালোলাগার কথা আমরা এক সময় মনের ভেতর চেপে রাখতে পারিনা। কারণ এই ভালোলাগা কখন যে ভালবাসায় পরিনত হয় তা একমাত্র আমাদের অন্তর জানে। আপনি যদি এমন ভাবেই কাউকে ভালোবেসে থাকেন তাহলে তাকে প্রপোজ করে ফেলেন।

যদি প্রোপোজ না করেন তাহলে সেটির ফল একেবারে শূন্য হবে। যদি দেখেন আপনার সামনে কোন বাধা আছে, তাও প্রপোজ করার মাধ্যমে সেই বাধা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। আপনারা যদি প্রিয়তম প্রিয়তম সামনে গিয়ে প্রপোজ না করতে চান তাহলে মেসেজের মাধ্যমে প্রপোজ করতে পারেন। প্রপোজ করার মেসেজ আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন। প্রপোজ করার মেসেজ তাদেরকে পাঠিয়ে দিন যাদেরকে আপনারা ভালোবাসেন।

প্রপোজ করার ছবি

যদি আপনার কোন বন্ধুকে আপনার ভালো লেগে যায় তাহলে তাকে ভালোবাসার কথা বলাটা একটু তো মুশকিল হয়ে যায়। কারণ বন্ধুকে যদি প্রপোজ করতে চান তাহলে বন্ধু বলবে যে দোস্ত আমি তোকে শুধু বন্ধু ভেবেছি এতদিন। আমি তোকে আসলে ভালোবাসি না। এই কথা যাতে শুনতে না হয় তার জন্য আপনারা প্রপোজ করার ছবি বা রোমান্টিক ছবি আপনার পছন্দের মানুষকে পাঠিয়ে দিতে পারেন।

প্রপোজ করার ছবিতে সুন্দর ফুলের নকশা সাথে সুন্দর সুন্দর কথা দিয়ে প্রপোজ করার কথা লেখা আছে। বর্তমানে তথ্যপ্রযুক্তির যুগে মানুষের দূরত্ব অনেক বেশি হলেও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মানুষ প্রপোজ করে থাকেন। তাছাড়া সামনাসামনি বলাটা অনেক কষ্টের এবং সাহসের বিষয়। তাই আপনারা প্রপোজ করার ছবি পাঠিয়ে দিতে পারেন আপনাদের পছন্দের মানুষের কাছে।

প্রপোজ করার ডাইলগ

কাউকে প্রপোজ করতে চাচ্ছেন? তাহলে প্রপোজ এর সময় কি ধরনের কথা বলবেন এবং কি ধরনের কথা বললে আপনাদের প্রপোজ আপনার প্রিয় তমা গ্রহণ করবে তা জেনে নিন আমাদের ওয়েবসাইট থেকে। আমাদের ওয়েবসাইটে প্রপোজ করার ডায়লগ দিয়ে দেওয়া আছে। ধরুন আপনি জানেন না যে কিভাবে প্রপোজ করলে আপনার প্রিয়তমা খুশি হবে।

আপনি জানেন না বলে সরাসরি তাকে আমি তোমাকে ভালোবাসি জানিয়ে দিলেন। এভাবে প্রোপোজ করলে কোন মেয়ে রাজি হবে না। তার জন্য আপনাকে সুন্দর সুন্দর কথা বলে তাকে ইমপ্রেস করতে হবে। তার জন্য আপনারা প্রপোজ করা ডায়লগ দেখে নিতে পারেন।

তাছাড়া অনেকে পর্যাপ্ত সাহস না থাকার কারণে প্রপোজ করার মুহূর্তে সহজ বিষয় গুলো গুলিয়ে ফেলেন। সেই ক্ষেত্রে আপনারা প্রপোজ করার ডায়লগ মুখস্ত করে নিতে পারেন বা সেই অনুযায়ী প্রস্তুতি গ্রহণ করেই আপনার প্রিয় তোমাকে প্রপোজ করতে পারেন।

প্রপোজ স্ট্যাটাস

আপনি আপনার প্রিয় তোমাকে প্রপোজ করতে চাইছেন একটু ইউনিক উপায়ে। তার জন্য আপনি মাধ্যম খুঁজে পাচ্ছেন না যে কিভাবে প্রপোজ করলে প্রিয়তমা আপনাকে অন্যান্য ছেলেদের চাইতে আলাদা ভাবে ভাবতে শিখবে। তার জন্য আপনি আপনার ফেসবুকে বা মেসেঞ্জারে মাই ডে স্ট্যাটাস হিসেবে প্রপোজ স্ট্যাটাস দিতে পারেন।

আপনার প্রিয়তমা যদি আপনার মনের কথা বোঝে এবং আপনাকে বোঝে , তাহলে সে নিশ্চিতভাবে আপনার প্রপোজ স্ট্যাটাস কাকে করা হয়েছে তা বুঝে ফেলবে। তাই আপনারা একটু ইউনিক হয়ে আলাদা ভাবে প্রোপোজ স্ট্যাটাসের মাধ্যমে প্রিয়তোমাকে প্রপোজ করতে পারেন। আশা করি এর মাধ্যমে আপনারা অনেক উপকৃত হবেন এবং আপনাদের মনের গোপন কথা ব্যক্ত হবে।

প্রপোজ করার ছন্দ

মাধ্যমিক পর্যায়ে পড়ার সময় আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একজন রসিক স্যার বলেছিলেন, “বাগানেতে চড়ে খাসি আমি তোমায় ভালোবাসি।”এই কথার মানে হল আপনি আপনার প্রিয় তোমাকে যখন প্রপোজ করবেন তখন আজেবাজে ছন্দ ব্যবহার না করাই ভালো। আপনার প্রিয় তমা যে মানসিকতার মানুষ হবে সেই অনুযায়ী আপনি তাকে প্রপোজ করার ছন্দ দিয়ে প্রপোজ করতে পারেন।

যদি আপনার প্রিয়তমা একজন রোমান্টিক মানুষ হয় এবং আপনাকে বুঝতে শিখে তাহলে আপনার প্রপোজ করার ছন্দ অনেক অনেক পছন্দ করবেন। প্রপোজ করার ছন্দ গুলো আপনারা মুখস্ত করে খুব সুন্দর ভাবে মনের মাধুরী মিশিয়ে এক্সপ্রেশন দিয়ে বলবেন। এতে আপনারা বিফল হবেন না। আর যদি বিফল হন তাহলে সেই দায়ভার আমাদের নয়। সর্বোপরি, প্রপোজ করার জন্য আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটের প্রপোজ করার ছন্দ দেখে নিয়ে সহায়তা গ্রহণ করতে পারেন।

প্রপোজ করার স্টাইল

আমাদের আশেপাশে অনেক মানুষই জানেন না কিভাবে প্রপোজ করলে প্রিয়তমা খুব সহজেই আপনাকে মেনে নেবে। অনেকে আপনাকে বলে থাকবে যে হাঁটু গেড়ে প্রিয়তোমাকে প্রপোজ করলে সে হয়তো আপনাকে খুব সহজেই মেনে নেবে। তবে সকল মান্ধাতার আমলের নিয়মকানুন বাদ দিয়ে আপনারা বর্তমান আধুনিক যুগের প্রপোজ করার স্টাইল সম্পর্কে জানতে পারেন।

আপনারা যদি বর্তমান সময়ের প্রপোজ করার স্টাইল সম্পর্কে অবগত হতে পারেন তাহলে প্রপোজ করার সময় প্রিয়তামা সামনে একই স্টাইলে প্রপোজ করবেন। তাহলে দেখবেন যে আপনার প্রিয় তমা আপনার অঙ্গভঙ্গি দ্বারা অনেকটাই আপনাকে মেনে নিয়েছে এবং পুরোপুরিভাবে স্বীকৃতি দিতে বাধ্য হবে। তাই আমরা বলবো যে, প্রপোজ করার সময় হ্যাংলামো না করে প্রপোজ করার স্টাইল দেখে স্টাইলিশ ভাবে প্রপোজ করুন।

প্রপোজ করার এস এম এস

যেহেতু প্রিয়তমাকে আপনি মন থেকে ভালবাসেন এবং সেই মানুষটির সঙ্গে আপনার অতটা সখ্যতা নেই , সেহেতু আপনার ভিতরে ভয় আসাটা স্বাভাবিক। কারণ আপনার ভিতর একটাই ভয় কাজ করছে যে, সে আপনাকে মেনে নিবে কিনা অথবা আপনার প্রতি রেগে যাবে কিনা। তবে সর্বোত্তম উপায় হলো সরাসরি চোখের দিকে চোখ রেখে প্রপোজ করা।

আপনার যদি এ ধরনের সাহসে না খোলায় তাহলে আপনারা প্রপোজ এসএমএসের মাধ্যমে করতে পারেন। প্রিয়তম ওর ফোনের এসএমএস বা মেসেঞ্জারে এসএমএস বা অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমে এসএমএস দিয়ে প্রপোজ করতে পারবেন। তার জন্য আপনাকে জীবন সম্বন্ধে সুন্দরভাবে ভালো ভালো কথা গুছিয়ে লিখতে হবে। আপনি তাকে আজীবন ভালবাসবেন এবং তার ্ পাশে থাকবেন এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করে তাকে প্রপোজ করার এস এম এস এর মাধ্যমে প্রপোজ করতে পারবেন।

প্রথম প্রপোজ করার চিঠি

অতীতকালে মানুষজন চিঠির মাধ্যমে প্রিয়তমকে প্রকাশ করতেন। তবে বর্তমান সময়ে সকল চিঠির যোগ একেবারেই শেষ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু আপনি চিঠির মাধ্যমে প্রপোজ করতে পারেন। যদি আপনার প্রিয়তমা একজন রসিক এবং সুন্দর মনের মানুষ হয় তাহলে আপনার ওই মান্ধাতার আমলের চিঠি আপনাকে অনেক এগিয়ে দিতে।

আপনি সহজেই তার দ্বারা গৃহীত হবেন। তবে চিঠির মাধ্যমে প্রপোজ করলে আপনার হাতের লেখা এবং সুন্দর কথা তাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য হবে এমন কথা লিখতে হবে। যদি আপনারা সেসব কথা সুন্দরভাবে গুছিয়ে না লিখতে পারেন তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের সহায়তা নিয়ে প্রথম প্রপোজ করার চিঠি লিখতে পারেন। আর প্রিয়তমাকে সেই চিঠিটি দিয়ে বলতে পারেন এই চিঠিটি তোমার এবং একা যখন থাকবে তখন এই চিঠিটি খুলবে। তাহলে আপনার কার্য সমাধান হয়ে যাবে।

প্রপোজ লেটার

আপনি কি প্রিয়তোমাকে প্রপোজ করার জন্য প্রপোজ লেটার সংগ্রহ করতে চান? তাহলে আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে প্রপোজ লেটার দেখে নিতে পারেন। এই প্রপোজ লেটার দেখে নিয়ে আপনারা আপনাদের প্রিয় তোমার নাম বসে সুন্দরভাবে লিখে নিতে পারেন প্রপোজ লেটার। আর পাঠিয়ে দিতে পারেন আপনার পছন্দের মানুষকে। যারা এখনো প্রপোজ লেটার সংগ্রহ করেননি তারা আমাদের ওয়েবসাইটের নিচের দিক থেকে সংগ্রহ করে নিন।

প্রপোজ করার কবিতা

প্রপোজ করার জন্য সুন্দর সুন্দর কবিতা আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটে পাবেন। অনেক মেয়ে আছে যারা কবিতা শুনতে এবং পড়তে পছন্দ করেন। যদি আপনি কোন ভাবে বোঝা থাকেন যে আপনার পছন্দের মানুষ কবিতা পছন্দ করে তাহলে চেষ্টা করবে নিজের থেকে সুন্দর করে একটি প্রপোজ করার কবিতা লিখতে।

আর যদি তা না পারেন তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের সহায়তা গ্রহণ করে আপনারা প্রপোজ করার কবিতা লিখে দিতে পারেন আপনার পছন্দের মানুষকে। তাহলে দেখবেন আপনার পছন্দের মানুষ আপনার প্রতি অনেক খুশি হয়েছে এবং আপনার প্রপোজ গ্রহণ করেছে।

যদি এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা আপনার পছন্দের মানুষকে প্রপোজ করে সফল হন এবং বিবাহ করে সংসার শুরু করেন তাহলে আমাদের ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে আপনাদের সকলকে শুভেচ্ছা প্রদান করা থাকবে। আমাদের ওয়েবসাইটের প্রপোজ বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য নিয়ে যদি আপনারা সফল হোন তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাবেন।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button