বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড (বাংলা লেখার সফটওয়্যার) সহজে বাংলা টাইপিং

যতগুলো মানুষ এন্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহার করে তাদের অধিকাংশই বাংলা কিবোর্ড দিয়ে বাংলা টাইপ করে। কারণ এন্ড্রয়েড মোবাইলে বাংলা লেখায় বাংলা কিবোর্ড ছাড়া কোন উপায় নাই।

আপনি কি সহজে বাংলা টাইপ করতে চাচ্ছেন? কোন সফটওয়্যার দিয়ে খুব সহজেই বাংলা টাইপিং করা যায় তা জানেন? অথবা কিভাবে বাংলা ভাষায় কথা বলে লেখা যায় তা জানতে চাচ্ছেন?

আপনাদের প্রশ্নগুলোর উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে এই লেখা টি আপনার জন্য। কারণ আমরা আজকে আলোচনা করব কতগুলো বাংলা টাইপিং সফটওয়্যার নিয়ে যেগুলো দ্বারা আপনি খুব সহজেই বাংলা কিবোর্ড এ বাংলা ভাষায় লিখতে পারবেন।

বাংলা কিবোর্ড কি

এন্ড্রয়েড মোবাইল ডিভাইসে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইংরেজি কিবোর্ড দেওয়া থাকে। অর্থাৎ মানুষ শুধুমাত্র ইংরেজি ভাষায় লিখতে পারে। কিন্তু বাংলা আমাদের মাতৃভাষা।

বাংলা ভাষায় যেভাবে মত প্রকাশ করা সম্ভব ইংরেজি দ্বারা তা সম্ভব হয় না। সে কারণেই আমরা বাংলা ভাষায় লিখতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি।

কিন্তু এন্ড্রয়েড মোবাইলের সীমাবদ্ধতার কারণে তা হয়ে ওঠে না।

এ সমস্যা সমাধানের জন্য বাংলাদেশের কিছু ডেভেলপার বাংলা ভাষায় কিবোর্ড তৈরি করে। বর্তমানে গুগোল প্লেস্টরে অনেকগুলো বাংলা টাইপিং কিবোর্ড পাওয়া যায়। এক একটা কিবোর্ড একেক ভাবে কাজ করে।

কোন কিবোর্ড ভয়েস টাইপ এর ক্ষেত্রে খুবই উপযোগী। আবার কোন কোন কিবোর্ড শুধুমাত্র হ্যান্ড টাইপিং এর জন্য পারফেক্ট। আমাদের আজকের লেখায় আমরা উভয় ধরনের কিবোর্ড নিয়েই আলোচনা করব।

বাংলা কিবোর্ড কম্পিউটার

আপনি যদি কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন তাহলে অবশ্যই বিজয় কিবোর্ড এর নাম শুনে থাকবেন। কারণ এটা খুবই জনপ্রিয় বাংলা টাইপিং কিবোর্ড। মোস্তফা জব্বার সর্বপ্রথম এই কিবোর্ডটি উদ্ভাবন করেন ১৬ ডিসেম্বর ১৯৮৮। বিজয় দিবসে এটা যাত্রা শুরু করে বলে এর নাম বিজয় কিবোর্ড।

এছাড়াও রয়েছে অভ্র কিবোর্ড যা বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত হয়। কিছু আকর্ষণীয় সুবিধার কারণে এই কিবোর্ড জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। যদিও বিজয় কিবোর্ড এর সাথে অভ্র কিবোর্ড এর কপিরাইট লঙ্ঘনের বিতর্ক জড়িত রয়েছে।

এরপরে যে কিবোর্ডটি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে তা হল ঋদ্মিক কিবোর্ড। যদিও এটি এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য বাংলা কিবোর্ড তবুও বিজয় কিবোর্ড এর মালিক মোস্তফা জব্বার দাবি করেন রিদ্মিক কীবোর্ড সফটওয়্যার কে নকল করে সফটওয়্যার তৈরি করেছে এবং কপিরাইট মামলা দিয়েছিল গুগলের কাছে। পরে অবশ্য ঋদ্মিক কিবোর্ড লেআউট পরিবর্তন করে নতুন ভাবে আবার গুগলের কাছে তাদের সফটওয়ারটি সাবমিট করেছে।

বাংলা অভ্র কিবোর্ড

প্রথমেই কিবোর্ডটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে কারণ এখানে ইংরেজি অক্ষর চাপলে বাংলা লেখা হয়। কম্পিউটারেও অভ্র কিবোর্ড ব্যবহার করা যায়। আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে অভ্র কিবোর্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। বর্তমানে এ কিবোর্ডটি বহুল ব্যবহৃত হয়।

ঋদ্মিক(রিদমিক) কিবোর্ড

রিদমিক বাংলা কিবোর্ড ২০১৫ সালে গুগল প্লে স্টোরে অবমুক্ত করা হয়। বর্তমানে বাংলা লেখার ক্ষেত্রে কিবোর্ডটি সবচেয়ে বেশি পরিমাণে ব্যবহৃত হয়। কারণ বিজয় কিবোর্ড এর লেখা খুবই কষ্টকর। অপরদিকে ঋদ্মিক কিবোর্ড ব্যবহার করে যে কেউ খুব সহজেই বাংলা ভাষায় লিখতে পারে। পক্ষান্তরে যুক্তবর্ণ লেখার জন্য রিদ্মিক কিবোর্ড এর জুড়ি মেলা ভার।

কিভাবে বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড করবেন

বাংলা কিবোর্ড বিভিন্ন ভাবে ডাউনলোড করা যায়। যেমন গুগল প্লে স্টোর থেকে আপনি বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড করতে পারবেন ঠিক তেমনিভাবে সংশ্লিষ্ট কিবোর্ড ওয়েবসাইট হতেও যেকোন ভার্সনের সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

এখন আমরা আলোচনা করব কিভাবে এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড করবেন।

বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড এর জন্য প্রথমে আপনাকে ভিজিট করতে হবে গুগল প্লে স্টোর। এটা যে কোন এন্ড্রয়েড মোবাইলেই থাকে। তবে এখান থেকে সফটওয়্যার ডাউনলোডের জন্য অবশ্যই আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট থাকা লাগবে।

Updated: September 7, 2020 — 4:55 pm

The Author

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *