সহজ বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড (বাংলা টাইপিং লেখার সফটওয়্যার)

যতগুলো মানুষ এন্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহার করে তাদের অধিকাংশই বাংলা কিবোর্ড দিয়ে বাংলা টাইপ করে। কারণ এন্ড্রয়েড মোবাইলে বাংলা লেখায় বাংলা কিবোর্ড ছাড়া কোন উপায় নাই।

আপনি কি সহজে বাংলা টাইপ করতে চাচ্ছেন? কোন সফটওয়্যার দিয়ে খুব সহজেই বাংলা টাইপিং করা যায় তা জানেন? অথবা কিভাবে বাংলা ভাষায় কথা বলে লেখা যায় তা জানতে চাচ্ছেন?

আপনাদের প্রশ্নগুলোর উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে এই লেখা টি আপনার জন্য। কারণ আমরা আজকে আলোচনা করব কতগুলো বাংলা টাইপিং সফটওয়্যার নিয়ে যেগুলো দ্বারা আপনি খুব সহজেই বাংলা কিবোর্ড এ বাংলা ভাষায় লিখতে পারবেন।

বাংলা কিবোর্ড কি

এন্ড্রয়েড মোবাইল ডিভাইসে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইংরেজি কিবোর্ড দেওয়া থাকে। অর্থাৎ মানুষ শুধুমাত্র ইংরেজি ভাষায় লিখতে পারে। কিন্তু বাংলা আমাদের মাতৃভাষা।

বাংলা ভাষায় যেভাবে মত প্রকাশ করা সম্ভব ইংরেজি দ্বারা তা সম্ভব হয় না। সে কারণেই আমরা বাংলা ভাষায় লিখতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি।

কিন্তু এন্ড্রয়েড মোবাইলের সীমাবদ্ধতার কারণে তা হয়ে ওঠে না।

এ সমস্যা সমাধানের জন্য বাংলাদেশের কিছু ডেভেলপার বাংলা ভাষায় কিবোর্ড তৈরি করে। বর্তমানে গুগোল প্লেস্টরে অনেকগুলো বাংলা টাইপিং কিবোর্ড পাওয়া যায়। এক একটা কিবোর্ড একেক ভাবে কাজ করে।

কোন কিবোর্ড ভয়েস টাইপ এর ক্ষেত্রে খুবই উপযোগী। আবার কোন কোন কিবোর্ড শুধুমাত্র হ্যান্ড টাইপিং এর জন্য পারফেক্ট। আমাদের আজকের লেখায় আমরা উভয় ধরনের কিবোর্ড নিয়েই আলোচনা করব।

সহজ বাংলা কিবোর্ড এর তালিকা

কতগুলো কিবোর্ড কঠিন এবং কতগুলো কিবোর্ড সহজ রয়েছে। আজকে আমরা আপনাদের সুবিধার্থে এখানে সহজ কিবোর্ড এর পূর্ণাঙ্গ তালিকা উপস্থাপন করব।

১/ ঋদ্মিক কিবোর্ড

২/ ঋদ্মিক ক্লাসিক কিবোর্ড

৩/ বাংলা কিবোর্ড 2020

৪/ বাংলা কিবোর্ড লাইট

৫/ বাংলা ভয়েস টাইপ কীবোর্ড

৬/ বিজয় বাংলা কিবোর্ড

৭/ ইউনিজয় বাংলা কিবোর্ড

বাংলা কিবোর্ড কম্পিউটার

আপনি যদি কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন তাহলে অবশ্যই বিজয় কিবোর্ড এর নাম শুনে থাকবেন। কারণ এটা খুবই জনপ্রিয় বাংলা টাইপিং কিবোর্ড। মোস্তফা জব্বার সর্বপ্রথম এই কিবোর্ডটি উদ্ভাবন করেন ১৬ ডিসেম্বর ১৯৮৮। বিজয় দিবসে এটা যাত্রা শুরু করে বলে এর নাম বিজয় কিবোর্ড।

এছাড়াও রয়েছে অভ্র কিবোর্ড যা বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত হয়। কিছু আকর্ষণীয় সুবিধার কারণে এই কিবোর্ড জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। যদিও বিজয় কিবোর্ড এর সাথে অভ্র কিবোর্ড এর কপিরাইট লঙ্ঘনের বিতর্ক জড়িত রয়েছে।

এরপরে যে কিবোর্ডটি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে তা হল ঋদ্মিক কিবোর্ড। যদিও এটি এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য বাংলা কিবোর্ড তবুও বিজয় কিবোর্ড এর মালিক মোস্তফা জব্বার দাবি করেন রিদ্মিক কীবোর্ড সফটওয়্যার কে নকল করে সফটওয়্যার তৈরি করেছে এবং কপিরাইট মামলা দিয়েছিল গুগলের কাছে। পরে অবশ্য ঋদ্মিক কিবোর্ড লেআউট পরিবর্তন করে নতুন ভাবে আবার গুগলের কাছে তাদের সফটওয়ারটি সাবমিট করেছে।

বাংলা অভ্র কিবোর্ড

প্রথমেই কিবোর্ডটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে কারণ এখানে ইংরেজি অক্ষর চাপলে বাংলা লেখা হয়। কম্পিউটারেও অভ্র কিবোর্ড ব্যবহার করা যায়। আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে অভ্র কিবোর্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। বর্তমানে এ কিবোর্ডটি বহুল ব্যবহৃত হয়।

ঋদ্মিক(রিদমিক) কিবোর্ড

রিদমিক বাংলা কিবোর্ড ২০১৫ সালে গুগল প্লে স্টোরে অবমুক্ত করা হয়। বর্তমানে বাংলা লেখার ক্ষেত্রে কিবোর্ডটি সবচেয়ে বেশি পরিমাণে ব্যবহৃত হয়। কারণ বিজয় কিবোর্ড এর লেখা খুবই কষ্টকর। অপরদিকে ঋদ্মিক কিবোর্ড ব্যবহার করে যে কেউ খুব সহজেই বাংলা ভাষায় লিখতে পারে। পক্ষান্তরে যুক্তবর্ণ লেখার জন্য রিদ্মিক কিবোর্ড এর জুড়ি মেলা ভার।

তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক এই কীবোর্ড সম্পর্কে কিছু তথ্য।

সফটওয়্যার এর নামঃ ঋদ্মিক কিবোর্ড

লেখার ভাষাঃ বাংলা ও ইংরেজি

ফাইল সাইজঃ ৭.৫ মেগাবাইট

ডাউনলোড করা হয়েছেঃ ১ কোটি বার

ব্যবহার করা যাবেঃ এন্ড্রয়েড ভার্সন 2.0 থেকে সর্বশেষ ভার্সন পর্যন্ত

ঋদ্মিক কিবোর্ড ডাউনলোড

ঋদ্মিক কিবোর্ড ডাউনলোড এর জন্য প্রথমে আপনাকে গুগল প্লে স্টোর ভিজিট করতে হবে। এরপর সার্চ বক্সে লিখতে হবে বাংলা কিবোর্ড। সার্চ রেজাল্টের প্রথমে আসবে রিদ্মিক কিবোর্ড এর নাম।

সার্চ রেজাল্ট পেজ এর প্রথম লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে। এরপর ইনস্টল বাটনে ক্লিক করলে আপনার কাছ থেকে পারমিশন চাইবে। প্রতিটি ক্ষেত্রে অ্যাক্সেস দিতে হবে। তাহলে অটোমেটিক কীবোর্ড ডাউনলোড শুরু হয়ে যাবে। ইন্টারনেট স্পিডের পার্থক্যের কারণে দুই থেকে তিন মিনিট সময় লাগতে পারে।

সফটওয়্যার টি ইন্সটল এর পূর্বে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে ফোন মেমোরিতে পর্যাপ্ত জায়গা আছে কিনা। তাছাড়া সফটওয়্যার ইনস্টলেশন কমপ্লিট হবে না।

বিজয় বাংলা কিবোর্ড

বিজয় বাংলা কিবোর্ড ব্যাপক জনপ্রিয়। এই কীবোর্ড ব্যাবহার করে ইউনিকোড দিয়ে বাংলা টাইপ করতে পারবেন খুব সহজেই। এ কিবোর্ড কম্পিউটার এবং মোবাইল ফোনে ব্যবহার করা যাবে।

আপনি কি কখনো বাংলা কিবোর্ড ব্যবহার করে দেখেছেন? বাংলা কিবোর্ড এমন একটি সফটওয়্যার যা দ্বারা অনায়াসেই বাংলা ভাষা লেখা যায় কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই।

বিজয় কীবোর্ড সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নিচে দেওয়া হল।

কি বোর্ডের নামঃ বিজয়

লেখার ভাষাঃ বাংলা ও ইংরেজি

ফাইল সাইজঃ ৫ মেগাবাইট

ডাউনলোড করা হয়েছেঃ ১ লক্ষ বার

ব্যবহার করা যাবেঃ এন্ড্রয়েড ভার্সন 2.0 থেকে সর্বশেষ ভার্সন পর্যন্ত

বিজয় বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড

বিজয় বাংলা কিবোর্ড গুগল প্লে স্টোর হতে এক লক্ষ বার ডাউনলোড করা হয়েছে। এখানে আমরা আলোচনা করব কিভাবে খুব সহজেই বাংলা লেখার সফটওয়্যার ডাউনলোড এবং ইন্সটল করবেন।

ইউনিজয় বাংলা কিবোর্ড

ইউনিজয় কিবোর্ড ডাউনলোড করতে হলে প্রথমে আপনাকে গুগল প্লে স্টোর ওপেন করতে হবে। এরপার সার্চ বারে লিখতে হবে ইউনিজয় এবং এন্টার প্রেস করতে হবে। প্রদর্শিত ফলাফল ভারতে প্রথম লিঙ্কে ক্লিক করে অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করলেই আপনার মোবাইলে বাংলা কিবোর্ড সেট হয়ে যাবে।

কিভাবে বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড করবেন

বাংলা কিবোর্ড বিভিন্ন ভাবে ডাউনলোড করা যায়। যেমন গুগল প্লে স্টোর থেকে আপনি বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড করতে পারবেন ঠিক তেমনিভাবে সংশ্লিষ্ট কিবোর্ড ওয়েবসাইট হতেও যেকোন ভার্সনের সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

এখন আমরা আলোচনা করব কিভাবে এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড করবেন।

বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড এর জন্য প্রথমে আপনাকে ভিজিট করতে হবে গুগল প্লে স্টোর। এটা যে কোন এন্ড্রয়েড মোবাইলেই থাকে। তবে এখান থেকে সফটওয়্যার ডাউনলোডের জন্য অবশ্যই আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট থাকা লাগবে।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।
Back to top button
Close
Close