জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড Birth Certificate PDF Download (জন্ম সনদ ফরম ডাউনলোড লিংক)

আপনি কি জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ফাইল আকারে ডাউনলোড করতে চান? তাহলে এই পোষ্টটি আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং কার্যকরী হবে। আজকে এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ডাউনলোড করার নিয়ম জানতে পারবেন। তাছাড়া আপনার জন্ম সনদটি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা আছে কিনা তা যাচাই করে নিন।

যেহেতু জন্ম নিবন্ধন সনদ প্রত্যেকটি মানুষের প্রয়োজনীয় একটি ডকুমেন্টস এবং বিভিন্ন কাজে ডকুমেন্টস আমাদের কাজে লাগে, সে তো আমরা আজকে জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ডাউনলোড করার পদ্ধতি সম্পর্কিত তথ্য ছাড়াও অন্যান্য তথ্য জানবো।

জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ফাইল আকারে ডাউনলোড করার পূর্বে আমরা আগে জেনে নেই আসলে জন্ম সনদ কি? জন্ম সনদ বলতে একজন ব্যক্তির ব্যক্তিগত তথ্য স্থানীয় সরকার প্রশাসন দ্বারা রেজিস্টারকৃত তথ্য। অর্থাৎ আপনি যে এলাকায় বসবাস করেন সেই এলাকায় আপনার স্থানীয় সরকার প্রশাসন দিয়ে আপনার সকল তথ্য যাচাই করে তার উপরে অনুমোদন প্রদান করা। জন্ম নিবন্ধন সনদ এ আপনার ব্যক্তিগত তথ্য থাকবে।

অর্থাৎ আপনার ব্যক্তিগত নাম, আপনার পিতার নাম, আপনার মাতার নাম, আপনার জন্ম তারিখ, আপনার স্থায়ী ঠিকানা আপনার জাতীয়তা ইত্যাদি। একটি কাগজে যখন এসকল তথ্য দেয়া হবে তখন ডাটা এন্ট্রি করে সকল তথ্য নিয়ে তাদের সরকারি ওয়েবসাইটে লিপিবদ্ধ করবে এবং আপনার সকল তথ্যের সত্যতা যাচাই করে স্থানীয় প্রশাসন সরকার তা অনুমোদন করবে।

এখন আমরা আসি জন্ম সনদ আমাদের ব্যক্তিগত জীবনে কি কি কাজে লাগে সেই সম্পর্কে

প্রকৃতপক্ষে জন্ম নিবন্ধন সনদ আমাদের অনেক কাজে লাগে। একজন মানুষ যখন 18 বছর পূর্ণ হয় এবং জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন করে তখন থেকে সেই ব্যাক্তি বাংলাদেশের নাগরিক। কিন্তু জন্মের পর থেকে 18 বছরের পূর্ব পর্যন্ত একজন ব্যক্তির পরিচয় পত্র হলো জন্ম নিবন্ধন সনদ। তাই বিভিন্ন ব্যক্তিগত এবং প্রাতিষ্ঠানিক কাজের জন্য আমাদের এই জন্ম নিবন্ধন সনদ কাজে লাগবে। বাইরের কোন জেলায় আমাদের কোন কাজে অংশগ্রহণ করতে হলে জন্ম নিবন্ধন সনদ দেখাতে হবে।

তাছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য জন্ম নিবন্ধন প্রয়োজন হয়। এছাড়াও বিবাহ নিবন্ধন, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ভোটার তালিকা প্রনয়ন, জমি রেজিস্ট্রেশন, বিদ্যুৎ সংযোগ প্রাপ্তি, ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন সনদ দেখাতে হয়। কারন, সে সকল কাজ সম্পাদন করার জন্য জন্ম নিবন্ধন সনদ দেখে তার সত্যতা যাচাই করা হয় এবং জন্ম নিবন্ধনের তথ্য সেই সকল কাজে ব্যবহার করা হয়।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড pdf

এখন অনেকেই জানতে চান জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করব কিভাবে। আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা আজকে এই পোস্টে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব যে জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ডাউনলোড করার নিয়ম। তাই আপনি যদি এই পোস্ট পড়েন তাহলে আপনি আপনার মোবাইল ফোন দিয়েও জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবেন।

তাই যারা জন্ম নিবন্ধন সনদের জন্য আবেদন করেননি অথবা এই জন্ম নিবন্ধন সনদ এখনো হাতে পাননি তারা স্থানীয় সরকার প্রশাসনের কাছে গিয়ে আপনাদের জন্ম নিবন্ধন করার জন্য তাদেরকে অনুরোধ করুন। বর্তমান সময়ে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করার জন্য সেই সত্যিকারের কার্ড প্রয়োজন হয়। তা ছাড়াও আরো যে সকল তথ্য লাগবে সেগুলো আপনারা স্থানীয় সরকার প্রশাসনের থেকে জানার চেষ্টা করুন এবং খুব দ্রুত জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে ফেলুন।

আর যারা জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করেছেন কিন্তু এখনো হাতে পায়নি তারা অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন। তাই যাদের খুবই প্রয়োজনীয় এই জন্ম নিবন্ধন সনদ, তারা দেরি না করে জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইন কপি ডাউনলোড করে নিন এবং তা আপনাদেরই স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান থেকে সত্যায়িত করে নিন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড 2021

বর্তমান সময়ে bris.gov.bd জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার জন্য অনলাইনে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। আগে জন্ম নিবন্ধন সনদ তারা শুধু প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ডাউনলোড করার ব্যবস্থা নিয়েছিলো। পরবর্তীতে একজন জনসাধারণের যখন এই জন্ম নিবন্ধন সনদ প্রয়োজন হবে তখন উল্লেখিত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে পারবে।

জন্ম নিবন্ধন সনদ যদি কোন ক্রমে হারিয়ে যায় অথবা আপনার হাত ছাড়া হয়ে যায় তাহলে অবশ্যই অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সনদ আপনারা ডাউনলোড করতে পারবেন। কম্পিউটার থেকে এই জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করলে আপনারা প্রিন্টারের মাধ্যমে সাথে সাথে প্রিন্ট করে নিতে পারবেন। তবে মোবাইলের মাধ্যমে যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইন কপি ডাউনলোড করেন তাহলে পিডিএফ ফাইল আকারে ডাউনলোড করে নিবেন এবং পরে সুবিধামতো প্রিন্ট করে নিবেন।

Birth certificate জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

এখন আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার পদ্ধতি শিখে নিন। নিচে জন্ম নিবন্ধন সনদ অর্থাৎ বার্থ সার্টিফিকেট ডাউনলোড করার জন্য ধাপে ধাপে নিয়মগুলো বোঝানো হলো।
*জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইন বা কম্পিউটারের মাধ্যমে ডাউনলোড করতে হলে আপনাকে যেকোন একটির ব্রাউজার ওপেন করতে হবে। ব্রাউজার এ প্রবেশ করে আপনারা সার্চ বক্সে জন্ম নিবন্ধন স্থানীয় সরকার প্রশাসন লিখে সার্চ করুন। তারপরে আপ্নারা জন্ম নিবন্ধন সরকারি স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠার নামক টাইটেলে একটি ওয়েবসাইটের ঠিকানা পাবেন। সেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন।

*তারপরে আপ্নারা ওয়েবসাইটে মোবাইল অথবা কম্পিউটার এর মাধ্যমে প্রবেশ করলেই ওপরের দিকে একই সারিতে ইংরেজিতে বার্থ সার্টিফিকেট ভেরিফিকেশন নামক একটি অপশন পাবেন। তাই বার্থ সার্টিফিকেট ভেরিফিকেশন নামক অপশনটিতে ক্লিক করুন।
*সেখানে প্রবেশ করলে আপনাদের সামনে দুইটা ফাঁকা ঘর আসবে। প্রথম ঘরে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রবেশ করাতে হবে। এখন আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন এর জন্য রেজিস্ট্রেশন একেবারেই না করে থাকেন এবং এই কার্ড যদি আগে হাতে না পান, তাহলে আপনি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন না।

তবে আপনি যদি আগে থেকে রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন এবং জন্ম নিবন্ধন সনদের এই কার্ডটি হারিয়ে ফেলেন তাহলে আপনি আপনার আগের জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে এই অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে সক্ষম হবেন।

*নিচের ফাঁকা ঘরে আপনারা আপনাদের জন্মতারিখ বসানো। প্রথমে আপনাদের জন্মের সাল, তারপরে আপনাদের জন্মের মাস এবং জন্মতারিখ বসান।

*তারপর এন্টার বাটনে ক্লিক করে আপনারা পরবর্তী পেজে চলে যান। আপনার ফাঁকা ঘরে দেওয়া তথ্য যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্ম নিবন্ধন এর যাবতীয় তথ্য সেই পেজে আপলোড হয়ে যাবে। তখন আপনি আপনার পিতা-মাতার তথ্য সহ যাবতীয় তথ্য যাচাই করে নিবেন।

*জন্ম নিবন্ধন সনদের এই অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য আপনারা যদি মোবাইল ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে নিচের দিকে ডাউনলোড অপশন পেয়ে যাবেন। আর যদি কম্পিউটার থেকে ডাউনলোড করেন তাহলে আপনারা মেনুতে গিয়ে সেভ এস পিডিএফ অপশনটিতে ক্লিক করে ডাউনলোড করে নিন।

তবে অনেক সময় সার্ভারের প্রবলেম থাকার কারণে আপনার হয়তো ডাউনলোড করতে গিয়ে পেজ লোড নিবে না। সেক্ষেত্রে আপনাদের ধৈর্য ধরে বারবার চেষ্টা করতে হবে এবং উপরে উল্লেখিত নিয়ম অনুসারে জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে হবে। শুধু জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইন কপি ডাউনলোড করলেই হবে না। ডাউনলোড করার পরে আপনার স্থানীয় সরকার প্রশাসন অর্থাৎ চেয়ারম্যান অথবা মেয়র এর দ্বারা সেই অনলাইন কপি সত্যায়িত করে নিতে হবে।

তাছাড়া অনেকেই আছেন যে জন্ম নিবন্ধন সনদের সেই কার্ডটি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে কিনা তা যাচাই করতে চান। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ কি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা হয়ে থাকে তাহলে আপনারা জন্ম নিবন্ধন এর নম্বর এবং জন্মতারিখ বসালেই আপনাদের সঠিক তথ্য পেয়ে যাবেন এবং তখনই বুঝতে পারবেন যে আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইনে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কে যেকোনো প্রশ্ন আপনাদের যদি জানার থাকে তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে তা লিখে দিন। আমরা আপনাদের সে সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে সবসময় সদা প্রস্তুত রয়েছি।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি।

Related Articles

2 Comments

  1. আসসালামু আলাইকম।ভাইয়া,আমি রিসেন্টলি বরিসশালের এক ভাইয়ের দ্বারা আমার একটা জন্ম নিবন্ধন বানিয়েছি।সেটা ইংরেজি ফরম্যাটে লেখা তো জন্ম স্থান কক্সবাজার,গ্রাম,ইউনিয়ন এগুলো কক্সবাজার।কিন্তু নিবন্ধন অফিস হচ্ছে বরিশালের অই ভাইয়ের এলাকার।অর্থাৎ ওখান থেকেই আমার জন্ম নিবন্ধনটা করছে বলেই নিবন্ধন অফিস ওখানেরটা দিছে এখন আমি যদি সংশোধন আবেদন করি তাহলে কি আমার অরিজিনাল কপিটা আমার ইউনিয়ন থেকে পাবো?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button