বিকাশ লোন নেওয়ার উপায় ও কিভাবে ঋণ পাওয়া যাবে বিস্তারিত আলোচনা

আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে সিটি ব্যাংক এবং বিকাশ লিমিটেড যৌথভাবে অনলাইন লোনের ব্যবস্থা করেছে। একজন যোগ্য বিকাশ গ্রাহক ১০,০০০ টাকা লোন নিতে পারবেন। পাইলট প্রকল্পের অধীনে বিনা জামানতে এই ঋণ সুবিধা পাবে নির্বাচিত কয়েক হাজার গ্রাহক।

আপনি কি বিকাশে অনলাইন লোন নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহী? তাহলে এই লেখা টি আপনার জন্য। এখানে আমরা আলোচনা করব কিভাবে লোন নিবেন, কিভাবে তা পরিশোধ করবেন এবং সুদের হার সম্পর্কে। তাহলে চলুন বেশি কথা না বাড়িয়ে মূল আলোচনা শুরু করা যাক।

বিকাশ ও সিটি ব্যাংক ১০,০০০ টাকা লোন

কোন প্রকারের জামানত ছাড়াই আপনি খুব সহজেই বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে ১০,০০০ টাকা ঋণ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যা পরবর্তীতে তিন মাসে তিনটি কিস্তিতে পরিশোধ করতে হবে।

বিকাশের তথ্যমতে, সিটি ব্যাংক এবং বিকাশ যৌথ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে দেশের প্রান্তিক লোককে ঋণ সুবিধা দেওয়ার জন্য। তাদের প্রকাশিত সংবাদে জানা যায়, পাইলট প্রকল্পের অধীনে কিছু সংখ্যক গ্রাহক প্রথমেই সুবিধা পাবে। পরবর্তীতে এ সেবা আরও বিস্তৃত করা হবে।

বিকাশ লোন নেওয়ার সহজ উপায়

আমরা ইতিমধ্যে বলেছি বিকাশ লোন নেয়া অত্যন্ত সহজ। আপনাকে কোন ঝামেলা ছাড়াই বিকাশ ঋণ দিবে। তবে অবশ্যই আপনাকে নির্বাচিত কাস্টমার হতে হবে। কারণ এখন পর্যন্ত এটা শুধুমাত্র কিছুসংখ্যক গ্রাহকদের জন্য সীমাবদ্ধ।

বিকাশ ঋণের সুদের হার ৯%

বাংলাদেশ ব্যাংকের ঋণের নিয়ম অনুসারে সকল প্রকার ঋণে শতকরা ৯ শতাংশ সুদ বলবৎ থাকবে। এক্ষেত্রে বিকাশ ব্যাতিক্রম নয়। সুতরাং তিন মাসের হিসেবে যে টাকা হবে তা আপনাকে সুদ-আসলে পরিশোধ করতে হবে।

কিভাবে বিকাশের লোন পরিশোধ করতে হবে

আপনি যদি বিকাশ থেকে লোন গ্রহণ করে থাকেন তাহলে সকল নিয়ম কানুন মেনে আপনাকে তা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। আপনি যদি কোনরকম অবৈধ পন্থা অবলম্বন করেন তাহলে আপনার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতা বিকাশ কর্তৃপক্ষ রাখে।

আমি বিকাশের ঋণ পাবো কিনা

আপনারা অনেকে জানতে চেয়েছেন আপনি বিকাশের লোন নেওয়ার যোগ্য কিনা। এটা যাচাইয়ের কোন পদ্ধতি নাই। শুধুমাত্র আপনিই জানতে পারবেন আপনি লোন পাবেন কিনা।

এজন্য আপনাকে বিকাশের অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। আর যদি ইতিমধ্যেই বিকাশে অ্যাপ ব্যবহার করে থাকেন তাহলে এটা আপডেট করে নিতে হবে। বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড এর জন্য গুগল প্লে স্টোর ভিজিট করুন।

কোন কোন ক্ষেত্রে বিকাশের ঋণ সুবিধা পাব

দুর্যোগকালীন সময়ে আপনি এই ঋণ গ্রহণ করতে পারবেন। বা গুরুতর কোন দরকারে তাৎক্ষণাৎ আপনি এই লোন সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

চলুন দেখে নেয়া যাক কোন কোন ক্ষেত্রে আপনি বিকাশ ও সিটি ব্যাংকের ১০ হাজার টাকার লোন সুবিধা পেতে পারেন।

১/ চিকিৎসা

২/ প্রাকৃতিক দুর্যোগ

৩/ কৃষিকাজ

যা জানা প্রয়োজন

বিকাশের লোন সুবিধা নেওয়ার জন্য আপনাকে কতগুলো বিষয় অবশ্যই জানতে হবে। সেগুলো নিচে দেওয়া হল।

১/ আপনাকে অবশ্যই বিকাশের নিয়ম মেনে চলতে হবে।

২/ বাংলাদেশ ব্যাংকের সুদ আসল এবং ঋণ-সংক্রান্ত নিয়ম-কানুন মেনে চলতে হবে।

৩/ আপনাকে অবশ্যই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে হবে।

৪/ আপনাকে ঋণ দেওয়া বা না দেওয়ার ক্ষমতা বিকাশ কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

৫/ ঋণের ব্যাপারে বিকাশের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে।

Updated: July 31, 2020 — 8:54 am

The Author

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *