মন খারাপের পিক, আবেগী মন Pic লেখা ছবি, স্ট্যাটাস, কবিতা ও উক্তি ডাউনলোড

মন খারাপের পিক, আবেগি মন পিক লেখা ছবি, স্ট্যাটাস, কবিতা ও উক্তি ডাউনলোড
আমাদের ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে সকলকে জানাই প্রীতি, শুভেচ্ছা এবং ভালোবাসা। আশা করি প্রত্যেক এই সুস্থ এবং ভাল রয়েছেন। আপনাদের উদ্দেশ্যে আমরা আজকে নতুন একটি ভিন্নধর্মী পোস্ট নিয়ে হাজির হয়েছি।

আপনারা জেনে থাকবেন যে আমরা মানুষের দৈনন্দিন চাহিদা সহ সকল ধরনের পোস্ট করে থাকি। বর্তমান যুগের প্রেক্ষাপটে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে একটি পোস্ট লিখেছি। এই পোষ্টের বিষয়বস্তু মন খারাপের পিক আবেগি মন পিক লেখা ছবি স্ট্যাটাস কবিতা এবং উক্তি ডাউনলোড। আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে আমরা বিভিন্ন ধরনের মনোভাবে চলাফেরা করি।

আমরা সকলের সাথে যেমন হাসি, তেমনই একাকিত্বে আমরা কষ্ট পাই। আমাদের মন খারাপ হয়, আমাদের মন আবেগে উতলা হয়ে উঠে। আবার আমরা সকল কিছু ঝেড়ে ফেলে দিয়ে নতুন করে জীবন শুরু করি। মানুষের জীবনে এই যে ভাঙ্গা গড়ার খেলা এটি মানুষকে শ্রেষ্ঠত্ব প্রদান করে। সকল কিছুকে জয় করে মানুষ একেক জন হিরো হয়ে যায়।

আপনি যদি একজন সাধারন মানুষ হয়ে থাকেন এবং দৈনন্দিন জীবনে আপনার যদি দুঃখ কষ্ট থেকে থাকে তাহলে এই পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়বেন। আর উপরে উল্লেখিত টপিকঃ অনুসারে আপনাদের বিভিন্ন জিনিস প্রদান করা হবে। তাই বন্ধুরা চলুন কথা না বাড়িয়ে আমরা নিচের দিকে যাই।

সেখান থেকে আমরা মন খারাপের পিক গুলো দেখে নিই। তাছাড়া আমাদের যাদের আবেগ বেশি, তারা আবেগী লেখা পিক, স্ট্যাটাস, ছবি, কবিতা এবং আবেগি উক্তি গুলো দেখে নিই।

মানুষের জীবন যেহেতু ভাঙ্গা গড়ার খেলা, তাই মানুষের জীবনের উত্থান-পতন আসবেই। মানুষ সকল কিছুকে তার স্বীয় শক্তি দ্বারা জয় করবে। তবে বিভিন্ন কারণে আমাদের মন খারাপ হয়। আমরা কষ্ট পাই। আমাদের আবেগ বেশি হয়ে গেলে আমরা কান্না করি।

তাই সময় উপযোগী বিভিন্ন ধরনের বিষয়গুলো আমাদের প্রয়োজন হয়। সেই উদ্দেশ্যে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে বিষয়ভিত্তিক পিক, ছবি, স্ট্যাটাস, কবিতা, উক্তি দিয়ে দিয়েছি আপনারা সেগুলো আমাদের ওয়েবসাইটের নিচে গিয়ে দেখে নিন।

মন খারাপের কিছু কথা

মানুষ হিসেবে প্রত্যেকটি মানুষই যে সবসময় সুখে দিন কাটাই বিষয়টি তা নয়। রাজ্য থেকে শুরু করে রোজা পর্যন্ত সকল শ্রেণীর মানুষ এর মন খারাপ হতে পারে। কিন্তু এই মন খারাপ করলেই যে সকল সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে তা না। জীবনে চলার পথে বিভিন্ন কাজের প্রেক্ষিতে আমাদের মন খারাপ হতেই পারে।

আপনার যদি কোন প্রসঙ্গ কত কারণে মন খারাপ হয়ে থাকে তাহলে কি আপনি মন খারাপ আরও দীর্ঘতর করতে চান? অবশ্যই না। যদি আপনার মন খারাপ হয়ে থাকে তাহলে তার প্রতিকার করতে হবে। মন খারাপ হয়ে গেলে আমাদের মন ভাল করার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। আপনার যদি মন খারাপ হয় তাহলে মন খারাপের কিছু কথা শুনতে পারেন।

এই মন খারাপের কথাগুলো হয়তো আপনার মন ভালো করে দেবে। যদি আপনি মনের দিক থেকে ভেঙে পড়েন তাহলে আপনার মনে সাহস যোগাবে। যেহেতু মন খারাপ বিষয়টা সাময়িক, তাই আপনি সাময়িক সময়কে আরও দীর্ঘতর করবেন না। আপনার যদি মন খারাপ হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনি মন খারাপের কিছু কথা পড়ে দেখবেন।

আশা করি এতে আপনার মন ভালো হবে। আপনি নতুন করে কাজের উদ্যম ফিরে পাবেন। তাই, ভাইরা আমার আপনাদের মন খারাপ হলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট থেকে মন খারাপের কিছু কথা পড়ে নিতে পারেন। যদি আপনার নিকট আত্মীয় কারো মন খারাপ হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই তাকে মন খারাপের কিছু কথা শোনাবেন। দেখবেন যে কারো মন ভালো হয়ে গেছে।

কষ্টের পিক ছেলে

আবেগ প্রত্যেকটা মানুষেরই রয়েছে। কষ্ট প্রত্যেকটি মানুষেরই রয়েছে। তবে যারা ছেলে আছেন তাদের কষ্ট অনেক বেশি। জীবনে চলার পথে বিভিন্ন বাস্তবতার সম্মুখীন হলে ছেলেরা অনেক কষ্ট পাই। তবে আমি এটা বলতে চাই না যে, মেয়েরা খুব সুখে থাকে। প্রত্যেকটি মানুষ এই জীবনে চলার পথে কষ্ট পেতে হয়।

আপনি যদি একজন ছেলে হয়ে থাকেন তাহলে বিভিন্ন পরিস্থিতির শিকার হয়ে কষ্ট পেতেই পারেন। বর্তমানে তথ্যপ্রযুক্তির যুগে প্রত্যেকটি মানুষের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। আপনারা যদি কোন কারনে কষ্ট পান তাহলে ফেসবুকে সেই কষ্টের পিক শেয়ার করতে পারেন। তবে সরাসরি কষ্টের পিক যদি ফেসবুকে আপলোড করেন তাহলে আপনাকে অনেকেই গণ্ডমূর্খ ভাববে।

এক্ষেত্রে আপনি কষ্টের পিক ছেলেদের জন্য প্রতীকী ছবি ব্যবহার করতে পারেন। নিজের ছবি না দিয়ে অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের ছবি ডাউনলোড করে নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করতে পারেন। এতে আপনার বন্ধুরা আপনার প্রতি সহমর্মিতা দেখাবে। আপনার কষ্টের অংশীদার হবে। আপনাকে আপনার কষ্ট থেকে দূরে থাকতে সাহায্য করবে।

মন খারাপের ছন্দ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ালেখায় ভালো ফলাফল আসছে না ।আপনার সেই জন্য মন খারাপ। চাকরি ক্ষেত্রে সুবিধা করতে পারছেন না। তার জন্য আপনার মন খারাপ। জীবনে চলার পথে উন্নতি সাধন করতে পারছেন না। তার জন্য আপনার মন খারাপ। জীবনে চলার পথে উঠতে-বসতে চলতে-ফিরতে আমাদের বিভিন্নভাবে কষ্ট পেতে হয়।

এ কারণে আমাদের মন খারাপ হয়ে যায়। সাহিত্যের বড় বড় গবেষকরা বলে থাকেন যে, মন খারাপ হলে আমরা আশ্রয় নিয়ে সাহিত্যের। আপনার যদি প্রচন্ড মন খারাপ হয়ে থাকে তাহলে আপনি একটি সুন্দর কবিতা পড়বেন। দেখবেন কবিতা আপনার মনের ভেতর এক প্রশান্তি এনে দিয়েছে। তাছাড়া মন খারাপ সম্পর্কিত বিভিন্ন ছন্দ অনলাইনে পাওয়া যায়।

আপনারা যেহেতু আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করেছেন তাই আপনারা আমাদের এখান থেকেই মন খারাপের ছন্দ দেখে নিতে পারবেন। আপনার যদি মনকে ভালো করতে চান তাহলে অবশ্যই মন খারাপের ছন্দ গুলো পড়বেন। এ মন খারাপের ছন্দগুলো এতটাই কার্যকরী যে আপনাদের মন অবশ্যই ভালো হবে।

মন খারাপ দিয়ে কোন সমস্যার সমাধান হতে পারে না। মন যদি খারাপ হয়ে যায়, তা অবশ্যই আমাদের ভালো করতে হবে। তার জন্য আমরা আশ্রয় নিব মন খারাপের ছন্দের। প্রিয় বন্ধুরা, আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে মন খারাপ ছন্দ গুলো পড়ে নিতে পারেন। চাইলে সেগুলো কপি করে নিতে পারেন। আপনাদের যখন মন খারাপ হবে তখন আপনারা এসকল মন খারাপের ছন্দ পড়তে পারবেন।

মন খারাপের ইমোজি

বিভিন্ন কারণে আমাদের মন খারাপ হয়। ধরুন আপনি মেসেঞ্জারে বা হোয়াটসঅ্যাপে কোন বন্ধুর সঙ্গে খোশগল্প করছেন। আপনার মন খারাপ। আপনি তাকে যদি হা হা ইমোজি পাঠান, তাহলে বিষয়টি অন্য মানে হয়। আপনার মনের সাথে সঙ্গতি রেখে আপনাকে অবশ্যই মন খারাপের ইমোজি পাঠাতে।

আপনারা যারা নতুন ফেসবুক বা অনলাইনের মাধ্যমে গুলো ব্যাবহার করেন তারা জানেন না কোন গুলো মন খারাপের ইমোজি। তারা আমাদের ওয়েবসাইটের সহায়তা গ্রহণ করতে পারেন। কারণ আমাদের ওয়েবসাইটে মন খারাপ হলে কোন কোন ইমোজি ব্যবহার করা যায় সেগুলো দেখানো হয়েছে। তাই মনের ভেতরের কষ্টগুলো প্রকাশ করতে আপনারা অবশ্যই মন খারাপের ইমোজি ব্যবহার করুন।

মন খারাপ থাকার ছবি

আমাদের মন খারাপ হয়। আবার কিছু সময় পরে আমাদের মন ঠিক হয়ে যাই। তবে অনেকের জীবনে চলার পথে বিভিন্ন ধরনের দীর্ঘ কষ্ট পেয়ে থাকে। আপনি যদি নিজের কষ্টকে বন্ধুদের মধ্যে ভাগ করতে চান তাহলে তা করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে একটি কথা বলা হয়ে থাকে যে, নিজের দুঃখ অন্যের কাছে প্রকাশ করতে নেই।

এতে করে নিজের Weight কমে যায় এবং অন্যরা সেই দুঃখ কষ্টকে সুযোগ হিসেবে গ্রহণ করে। ধরুন, কোনো কারণে আপনার প্রচন্ড মন খারাপ হলো। আপনি হয়তো ফেসবুক নিয়মিত ব্যবহার করেন। আপনার দৈনন্দিন জীবনের ঘটনা গুলো আপনারা বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করেন।

এখন আপনার ছবি দিয়ে যদি আপনি নিজের মন খারাপ প্রকাশ করতে চান তাহলে বিষয়টি অন্য রকম দেখায়। আপনার মন খারাপ থাকার কারণে আপনি হয়তো হাউমাউ করে কেঁদে বুক ভাসিয়ে ছবি ফেসবুকে আপলোড করলেন। বিষয়টি আপনার বন্ধুরা হাস্যকর হিসেবে দেখবে।

তাই আপনাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে, আপনারা মন খারাপ থাক আর ছবিগুলো হিসেবে প্রতীকী ছবি ব্যবহার করতে পারবেন। এতে করে আপনার বন্ধুরা আপনার মন খারাপের বিষয়টি বুঝতে পারবে। তারা যদি প্রকৃত বন্ধু হয় তাহলে অবশ্যই আপনার মন খারাপের কারণ জানার জন্য আপনার খোঁজ নিবে।

মন খারাপের কবিতা ছবি

আমার কিছু বন্ধু রয়েছে যারা ক্ষুদ্র কোন কাজ করলে ফেসবুকে পোস্ট করে মানুষকে জানাতে পছন্দ করেন। তবে তারা তাদের মন খারাপ হলে ফেসবুকে ছবি বা কোন ধরনের কোন কিছু পোস্ট করে না। আপনার ফ্রেন্ডলিস্টে যদি আপনার নিকট আত্মীয় এবং কাছের বন্ধু থাকে, তাহলে আপনি মন খারাপের কবিতা ছবি পোস্ট করতে পারেন।

আমাদের ওয়েবসাইটে মন খারাপের কবিতা দেওয়া আছে। এগুলো হয়তো আপনারা কপি করে নিয়ে পেস্ট করে পোস্ট করতে পারছেন না। সে ক্ষেত্রে আপনারা মন খারাপের কবিতা ছবিগুলো ডাউনলোড করে নিবেন। এগুলো আপনাদের ফেসবুক ওয়ালে গিয়ে পোস্ট করতে পারবেন খুব সহজেই।

তাই নিজের মনের অনুভূতি বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে অবশ্যই আপনারা মন খারাপের কবিতা ছবি ব্যবহার করতে পারেন। অনেকে আছে চাপা স্বভাবের। তাদের মনের ভেতরের কষ্টগুলো অন্যদের মধ্যে শেয়ার করতে চায় না।

কিন্তু আপনি যদি আপনার মনের কষ্টগুলো বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করেন তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুরা আপনার প্রতি সহমর্মিতা দেখাবে। আপনার মন খারাপের কারণ জানতে চাওয়ার পাশাপাশি আপনার মন ভালো করেও দিবে।

আবেগি স্ট্যাটাস

আপনারা হয়তো মোশারফ করিমের একটি বিখ্যাত নাটক আছে, তা দেখে থাকবেন। নাটকটির নাম হচ্ছে সিকান্দার বক্স। এই নাটকে মোশারফ করিম তার আবেগ সম্পর্কিত কারণে বিভিন্ন সময়ে কেঁদে উঠে। আর কথায় কথায় বলে আমার এত আবেগ কেরে। তো আমরা সে বিষয়ে না গিয়ে আমরা আমাদের কাজের কথায় আসি।

মানুষের জীবনে চলার পথে বিভিন্ন কারণে মানুষকে কষ্ট পেতে হয়। দুঃখ পেতে হয়। আপনি একটি কোমল হৃদয়ের মানুষ। কোন এক কারনে আপনার বন্ধু সরলতার সুযোগ নিয়ে আপনাকে কষ্ট দিয়েছে। অথবা আপনি কোন বন্ধুর থেকে কোন কিছু পাওয়ার প্রত্যাশা করেন। কিন্তু সে প্রত্যাশার ক্ষেত্রে আপনার বন্ধু আপনার কথা মনে রাখল না।

তখন আপনার কোমল মন আবেগী হয়ে উঠবে। মন চাইবে এই দুঃখের কথা এই আবেগের কথা বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করি। যেহেতু আপনি কষ্ট পেয়েছেন এবং আপনার হৃদয় আবেগে পরিপূর্ণ তাই হয়তো আপনি সুন্দর করে আবেগি স্ট্যাটাস লিখতে পারছেন না। তাতেও কোন সমস্যা নেই।

আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ফেসবুকে পোস্ট করার জন্য আবেগি স্ট্যাটাস দেখে নিতে পারেন। এগুলা নিজেদের সংগ্রহে রেখে ফেসবুকে খুব সহজে পোস্ট করবেন। আশাকরি আপনার বন্ধুরা আপনার দুঃখের ভাগিদার হবে। আপনার আবেগের অংশীদার হবে।

আবেগি কষ্টের স্ট্যাটাস

আপনি কি আবেগি কষ্টের স্ট্যাটাস খুঁজছেন? যদি খুঁজে থাকেন তাহলে বলব যে, আপনি সঠিক ওয়েবসাইটে এসেছেন। আপনার দৈনন্দিন জীবনের সুখ -দুঃখ, কষ্ট আবেগের প্রতি লক্ষ্য রেখে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে আবেগি কষ্টের স্ট্যাটাস দিয়ে দিয়েছি। আপনার বন্ধুদের দ্বারা বা আত্মীয় স্বজনদের দ্বারা আপনি হয়তো কোনো ব্যাপারে কষ্ট পেলেন।

আপনার নরম মন সেটি মেনে নিতে পারল না। তখন আপনি আবেগী হয়ে অনেক কান্নাকাটি করলেন। তখন আপনার কি করা উচিত বলে মনে হয়? নিশ্চয়ই ঘরের মধ্যে খিল দিয়ে কান্নাকাটি করা উচিত নয়। আপনার মনের কষ্টটা আপনি ফেসবুকে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনি সরাসরি কোনো কিছু বলে বোঝাবেন না।

আপনি যে বন্ধুদের দ্বারা কষ্ট পেয়েছেন এবং আবেগী হয়ে উঠেছেন সে বিষয়গুলো প্রতীকী মাধ্যমে জানাবেন। এতে করে আপনার যে সকল বুঝদার বন্ধু রয়েছে, তারা সহজেই বুঝে যাবেন। তাই আমার সাদা মনে বলছি আপনারা ,যারা আবেগি কষ্টের স্ট্যাটাস ফেসবুকে পোস্ট করতে চাচ্ছেন, তারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আবেগি কষ্টের স্ট্যাটাস গুলো ডাউনলোড করে নিন।

আবেগি মন স্ট্যাটাস

আবেগ মনের মধ্যে অবস্থান করে। খুব সহজ বিষয় আমাদের মন আবেগী হয়ে ওঠেন। তখন আমরা আমাদের আবেগি মন নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ি। আমাদের আবেগি মন সাড়া দেয় চোখ ফেটে জল বের করতে। অনেকে আছেন যারা আবেগি মন কে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য আবেগি মন স্ট্যাটাস দিতে চান।

কিন্তু তখন আবেগি মন পরিপূর্ণ থাকায় সুন্দর ভাবে কথাগুলো লিখতে পারেন না। কেন আপনি আবেগে পড়ে কষ্ট পেয়েছেন তা বোঝাতে পারেন না। তার জন্য আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটের সহায়তা গ্রহণ করতে পারেন।

সহজে সকলে বুঝবে এমন আবেগি মন স্ট্যাটাস আমাদের ওয়েবসাইটে আপনারা পাবেন। তাই যাদের মন আবেগি পরিপূর্ণ এবং ভেতরে ভেতরে অনেক কষ্ট পাচ্ছেন তারা অবশ্যই আবেগি মন স্ট্যাটাস বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করেন।

আবেগি ক্যাপশন

ফেসবুকে হয়তো ও কোনো একটি ছবি আপনি ছাড়তে যাচ্ছেন। যেহেতু আপনি একজন সিঙ্গেল মানুষ তাই আপনার ভেতরে অনেক আবেগ। আমার বন্ধু আছে ,সেই বন্ধু নিজের সুন্দর মুখমন্ডলের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে। আর উপরে আবেগি ক্যাপশন দেয়। সেই বন্ধুর মুখমন্ডলে কিন্তু হাসি নেই।

সে আসলে বুঝাতে চায় যে, সিঙ্গেল থেকে তার জীবনটা বরবাদ হয়ে গিয়েছে। আমি যদি ভুল না করি, আপনাদের একই অবস্থা। তাই আপনারা ফেসবুকে ছবির সঙ্গে হাস্যোজ্জ্বল মাখা ছবি দিতে পারেন না। দিলেও উদ্ভট উদ্ভট ক্যাপশন দেন। মেয়েদের পটানোর একমাত্র কৌশল হচ্ছে ফেসবুকে সুন্দর ছবির সাথে আবেগি ক্যাপশন দেওয়া।

আপনি যদি এই পদ্ধতি গ্রহণ করেন ,আর যদি আপনার গার্লফ্রেন্ড হয়ে যায় ,তাহলে আমার বাড়িতে মিষ্টি পাঠিয়ে দিয়েন। আর যদি না হয় তাহলে আমি দায়ী থাকবো না। তবে আপনাদের উচিত হবে ফেসবুকের সুন্দর ছবির সঙ্গে আবেগি ক্যাপশন দেওয়া। আবার অনেক বন্ধু রয়েছেন যারা সব সময় নিজের দুঃখটা অন্যের কাছে প্রকাশ করতে চান।

সে ক্ষেত্রে আপনারা ছবির সাথে আবেগি ক্যাপশন দিতে পারেন। তার জন্য আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটের নিচে গিয়ে আবেগি ক্যাপশনগুলো নিয়ে নিন। ছবির সাথে সামঞ্জস্য রেখে যে আবেগি ক্যাপশন পছন্দ হয় সেটি আপনারা দিয়ে পোস্ট করুন।

আবেগ নিয়ে কিছু কথা

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মনীষীগণ আবেগ নিয়ে কিছু কথা বলে গেছেন। অনেকেই আবেগের স্বপক্ষে কথা বলে গেছেন। অনেকেই আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে বলে গেছেন। তবে আবেগ হচ্ছে মস্তিষ্ক সৃষ্টি একটি বিষয়। আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে খুব কম মানুষ। প্রত্যেকটি মানুষের আবেগ চাইলেই নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

যারা মোশারফ করিমের মত অতিরিক্ত আবেগের ঠেলায় কেঁদে ফেলেন, তাদের জন্য আবেগ নিয়ে কিছু কথা বলা হয়েছে। আপনারা যারা উঠতে-বসতে খেতে চলতে-ফিরতে আবেগ নিয়ে পড়ে থাকেন তারা এই আবেগ নিয়ে কিছু কথা পড়তে পারেন। এতে করে আপনাদের কিছুটা হলেও আবেগ নিয়ন্ত্রিত হবে।

তাই আবেগের উত্তেজনায় না পড়ে বাস্তবসম্মতভাবে চিন্তা করুন। জীবনের ইতিবাচকতা এনে জীবনে সফল হন। আর আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আবেগ নিয়ে কিছু কথা অধ্যায়টি ভালোমতো পড়ুন।

বাংলা আবেগি ফেসবুক স্ট্যাটাস

ফেসবুকে কি একটি পোস্ট করতে চাচ্ছেন? আপনার মনে কি অনেক দুঃখ? অনেক কষ্ট এবং আবেগ? ভাই আপনার জন্য একটি সাজেশন রয়েছে। সাজেশনটি হলো বাংলা আবেগি ফেসবুকে স্ট্যাটাস সম্পর্কে। যারা ফেসবুকে উদ্ভট উদ্ভট স্ট্যাটাস দিয়ে মানুষজনকে বিরক্ত করছেন তাদের জন্য এই পোস্টটি।

আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আপনার আপনারা বাংলা আবেগি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেখে নিতে পারেন। হয়তো বাংলা আবেগি ফেসবুক স্ট্যাটাসে সঙ্গে আপনার জীবনের অনেকটাই মিল থাকতে পারে। যারা গুছিয়ে লিখতে পারেন না তারা বাংলা আবেগি ফেসবুকে স্ট্যাটাসের সহায়তা গ্রহণ করতে পারেন। নিজের জীবনের সঙ্গে মিল রয়েছে, এমন বাংলা ফেসবুক স্ট্যাটাস ফেসবুকে পোস্ট করে বন্ধুদের জানিয়ে দিতে পারেন।

ভালোবাসার আবেগী স্ট্যাটাস

বর্তমান যুগের মানুষদের বেশি আবেগের কারণ হচ্ছে ভালোবাসা। আজকালকার ছেলেমেয়েদের দিকে লক্ষ্য করলে দেখবেন যে, তারা খুবই অল্প বয়সে সম্পর্কে জড়াই। খুব অল্প দিনেই তাদের সম্পর্কের ইতি ঘটে। কারণ তাদের একটাই কারন অতিরিক্ত আবেগ। তারা সম্পর্কে জড়াইও আবেগের কারণে। সম্পর্ক ভাঙে আবেগের কারণে।

সম্পর্ক সম্পর্কে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয় আবেগের কারণে। এই আবেগের মূলে রয়েছে ভালোবাসা। আপনি যদি প্রেমে ব্যর্থ হন বা সফল হন তাহলে ভালোবাসার আবেগী স্ট্যাটাস দিতে পারেন। নিজের জীবনের সঙ্গে মিল রয়েছে এমন ভালোবাসার আবেগী স্ট্যাটাস আপনারা ফেসবুকে পোস্ট করতে পারেন।

আবার আপনি আপনার প্রিয়তমা কে ভালোবাসার আবেগী স্ট্যাটাস পাঠিয়ে দিতে পারেন। এতে করে আপনার প্রিয়তমা আপনার প্রতি তার ভালবাসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। তাই যারা ভালোবাসার আবেগী স্ট্যাটাস খুঁজছিলেন, আশা করি তারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে পেয়ে গেছেন।

আবেগি উক্তি

আবেগি উক্তি বলতে আবেগ নিয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কথাবাত্রাকে বোঝানো হয়েছে। যারা অতিরিক্ত আবেগের ঠেলায় কোন কিছুই করতে পারেন না তারা এই আবেগি উক্তি পড়ে দেখতে পারেন। যাদের আবেগ অতিরিক্ত বেশি তারা আবেগি উক্তি পড়ে দেখবেন। আবেগ সম্পর্কে বিভিন্ন মনীষীর বিভিন্ন উক্তি প্রদান করে গেছেন।

আপনার আবেগের ঠেলায় যাতে আপনি ক্ষতিগ্রস্ত না হয় এবং অন্যকেও ক্ষতিগ্রস্ত না হয় তার জন্য , এই আবেগি উক্তি করে রাখাটা খুবই জরুরী। তাই বন্ধুদের কাছে আমার গুরুত্বপূর্ণ বাণী হচ্ছে, জীবনে চলার পথে আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে আপনারা অবশ্যই আবেগি উক্তির কথা অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলুন। এতে করে সকলের জীবনে আবেগের থেকে দূরে অবস্থান করে উন্নতি করা সম্ভব হবে।

আবেগি কবিতা

অনেকে আবেগ তাড়িত হয়ে আবেগী কবিতা পড়তে ভালবাসে। তাদের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে একটি বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। সকল আবেগি কবিতার মধ্যে বেছে বেছে সুন্দর আবেগী কবিতা গুলো আমাদের ওয়েবসাইটে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। আপনারা যারা আবেগী কবিতা পড়তে ভালোবাসেন তারা অবশ্যই আবেগী কবিতা গুলো পড়ে দেখবেন।

আশা করি আমাদের ওয়েবসাইটে দেওয়া আবেগী কবিতা গুলো আপনাদের খারাপ লাগবে না। আবেগি কবিতা গুলো যদি আপনি পড়েন হয়তো আপনার চোখে জল আসতে পারে। কিন্তু আমাদের ওয়েবসাইটে বারবার হাইলাইট করা হচ্ছে যে, আপনার আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করুন। জীবনে চলার পথে আবেগকে মূল্যায়িত না করে বাস্তবতাকে মূল্যায়ন করুন। তাই যাদের প্রয়োজন তারা অবশ্যই আবেগী কবিতা গুলো পড়ে দেখুন এবং বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন।

মোটের উপর আবেগ এবং মন খারাপ সংক্রান্ত যত ধরনের তথ্য রয়েছে তা আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে পেয়ে গেছেন বলে আমাদের ধারণা। মন খারাপ না করে এবং আবেগের ঠেলায় না পড়লে আপনারা বাস্তব সম্মত হন। জীবনে চলার পথ অনেক বাকি। জীবনে চলার পথে উত্থান-পতন কে সামাল দিয়ে আমাদের উন্নতি করতে হবে।

সর্বোপরি, সকলেই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন এবং সুন্দর থাকুন। আমাদের এই পোস্টটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাবেন।

sad quotes status bangla

Bangla Romantic Quotes রোম্যান্টিক কবিতা Status

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button