টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের টিকটক ভিডিও বানানোর প্রতি খুব আগ্রহ প্রকাশ করছে। প্রকৃতপক্ষে লিপসিং করাকেই tiktok বলা হয়ে থাকে। অর্থাৎ কোন একটি গানের সাথে অথবা কথার সঙ্গে যখন আপনি মুখ মিলিয়ে অঙ্গভঙ্গি করবেন তখন সেটা টিকটক হয়ে যাবে। টিকটক ভিডিও এর ডিউরেশন হলো পনেরো সেকেন্ড। তাই ১৫ সেকেন্ডে একজন মানুষ চাইলে খুব সুন্দর ভাবে নিখুঁত অভিনয়ের ভিত্তিতে একটি গানের জন্য করতে পারেন অথবা অভিনয় করে দেখাতে পারেন।

যেহেতু এখানে ভয়েস প্রদান করা আলাদাভাবে লাগছে না সেহেতু আপনাদের অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে খুব সুন্দর একটি ভিডিও ফুটিয়ে তোলা সম্ভব। আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের জন্য আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে টিক টক ভিডিও কিভাবে বানাতে হয় সে সম্পর্কে ধারণা প্রদান করব। আপনারা যারা বিভিন্ন সময়ে টিকটক দেখে থাকেন এবং টিক টক ভিডিও বানানোর প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন তারা আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাতে হয় সেটা জেনে নিবেন। তাহলে আপনারা সঠিক দিক নির্দেশনা অনুসরণ করে সঠিক অ্যাপস ডাউনলোড করতে পারবেন এবং tiktok ভিডিও করে সেগুলো সেভ করে রাখতে পারবেন অথবা নিজেদের পেজে আপলোড করতে পারবেন।

প্রথমত আপনি যখন tik tok ভিডিও তৈরি করবেন তখন আপনাকে প্লে স্টোরে যেতে হবে এবং সেখানে টিকটক নামক যে অ্যাপস রয়েছে সেটা লিখে সার্চ করে বের করতে হবে। সেটি যখন আপনারা ডাউনলোড করে ফেলবেন তখন ইন্সটল হয়ে যাবে এবং ইনস্টল করার পর আপনাকে কিছু তথ্য প্রদান করার ভিত্তিতে একটি tiktok একাউন্ট খুলতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার ইমেইল একাউন্ট লাগতে পারে এবং ইউজার আইডি এবং অন্যান্য তথ্য প্রদান করে রাখতে পারে।

হার পাওয়ার প্রজেক্ট ট্রেনিং বিনামূল্যে মেয়েদের আউটসোর্সিং বিষয়ে ট্রেনিং কারা পাবে, কবে শুরু হবে, কিভাবে করতে হবে

আপনি আসলে কোন কোন বিষয়ে আগ্রহী সে বিষয়গুলো যদি সিলেক্ট করেন তাহলে সেই ধরনের tiktok ভিডিও আপনাকে দেখানো হবে। সে ক্ষেত্রে ইংরেজিতে আপনাকে অপশন গুলো সিলেক্ট করতে হবে এবং আপনি যদি সকল অপশন অথবা সকল ধরনের tiktok দেখতে পছন্দ করেন তাহলে সব যে অপশন রয়েছে সেটির উপর ক্লিক করবেন। এরপরে আস্তে আস্তে ঠিকঠাক দেখা শুরু করবেন এবং আপনার যখন একটি টিকটক একাউন্ট খোলা হয়ে যাবে তখন বিভিন্ন ভিডিও দেখার সাথে সাথে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও আপনারা চাইলেই সেই সময় তৈরি করে নিতে পারবেন।

একটি টিকটক ভালো লাগার সাথে সাথে সেখানে আপনারা গানের জন্য যে ডিজাইন ব্যবহার করা হয় সেটির উপরে ক্লিক করবেন। তারপরে আপনার ভিডিও ক্যামেরা ওপেন হয়ে যাবে এবং এক্ষেত্রে আপনি সামনের ক্যামেরা দিয়ে নাকি পেছনের ক্যামেরা দিয়ে এটি একটি ভিডিও বানাবেন সেটা নির্দিষ্ট করতে পারবেন। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট রয়েছে অথবা আপনি ভিডিও করার ক্ষেত্রে কোন কোন এডিট অপশন নির্বাচন করতে চান সেটি ধীরে ধীরে শিখে যাবেন অথবা সেটি আস্তে আস্তে নির্বাচন করবেন।

এভাবে আপনার যখন tik tok ভিডিও বানানোর ক্ষেত্রে স্টার্ট অপশন তখন আপনারা স্টার্ট অপশনে ক্লিক করবেন এবং সেখান থেকে আপনাদের ভিডিও চালু হয়ে যাবে। ব্যাকগ্রাউন্ডে মিউজিক অথবা কথাগুলো চলাচল করার পাশাপাশি আপনারা ক্যামেরার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের অঙ্গভঙ্গি অথবা না অথবা সুন্দর এক্সপ্রেশন দিতে পারেন। সময় শেষ হয়ে যাওয়ার সাথে সাথে আপনি আপনার ভিডিওটি দেখতে পারবেন এবং সেটি যদি আপনার ভালো লাগে তাহলে আপনার টিকটক একাউন্টে সেটি শেয়ার করার পাশাপাশি নিজেদের ডিভাইসে সেভ করে রাখতে পারেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button