রনিদের এলাকার মতো পরিস্থিতিতে তোমার এলাকায় কোভিদ আক্রান্তদের জন্য বিদ্যালয়ের বন্ধুরা মিলে কি ধরনের সেবামূলক উদ্যোগ নেয়া যায় তার একটি তালিকা প্রণয়ন করো।

অষ্টম শ্রেণি বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২০ ক্লাস ৮

কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সবাইকে ঘরে থাকতে বলা হয়েছে কিন্তু প্রতিবশী যদি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয় তাহলে তাদের প্রতি অবশ্যই আমাদের কিছু দায়িত্ব কর্তব্য রয়েছে। স্বাস্থ্য বিধি মোতাবেক তাদের সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা আমাদের সামাজিক দায়িত্ব।

কারন এ অবস্থায় এমনিতেই আক্রান্ত ব্যক্তি মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পরে উপরন্তু যদি প্রতিবেশীরা সহানুভূতিশীল না হয় তাহলে আক্রান্ত ব্যক্তি আরো মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে।

রনিদের এলাকার মতো পরিস্থিতিতে আমার এলাকায় কোভিড আক্রান্তদের জন্য বিদ্যালয়ের বন্ধুরা মিলে যে ধরনের স্বেচ্ছাসেবামূলক উদ্যোগ নেওয়া যায় তার তালিকা নিচের সমাধানে তুলে ধরা হলো। উল্লেখ্য প্রিয় শিক্ষার্থী, তোমাদের সমাধানটি প্রস্তুতের কাজ এখনো চলমান রয়েছে। কিছু সময় পরে আবার আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিটের জন্য অনুরোধ করা হলো

রনিদের এলাকার মতো পরিস্থিতিতে তোমার এলাকায় কোভিদ আক্রান্তদের জন্য বিদ্যালয়ের বন্ধুরা মিলে কি ধরনের সেবামূলক উদ্যোগ নেয়া যায় তার একটি তালিকা প্রণয়ন করো।

প্রশ্নের মূল উত্তর লেখার কাজ চলছে। একটু পরে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।

উদ্দীপক পড় ও নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও
covid-19 এর কারণের রনির স্কুলের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। সেটি কভিড কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। গত সপ্তাহের রনিদের পাশের বাড়িতে একজন কোভিদ পজেটিভ রোগী শনাক্ত হয়। পাড়া-প্রতিবেশীরা সবাই তাদের বাড়ির সাথে সব ধরণের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়ায় পরিবারটি চরম অসহায় পরিস্থিতিতে পড়ে। এলাকার স্বেচ্ছাসেবীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সহায়তায় তাদের এই দুর্ভোগ লাঘব করেন।
ক) সাংস্কৃতিক আত্তীকরণ বলতে কী বোঝায়?
খ) সামাজিক পরিবর্তনের দুটি উদাহরণ দাও।
গ) রনিদের এলাকার মতো পরিস্থিতিতে তোমার এলাকায় কোভিদ আক্রান্তদের জন্য বিদ্যালয়ের বন্ধুরা মিলে কি ধরনের সেবামূলক উদ্যোগ নেয়া যায় তার একটি তালিকা প্রণয়ন করো।
ঘ) উদ্দীপকে বর্ণিত পরিস্থিতিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আমাদের সামাজিকীকরণে কি ধরনের প্রভাব বিস্তার করছে তা ব্যাখ্যা করো।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Related Articles

Back to top button
Close
Close