জিপি ইন্টারনেট অফার 2021 (গ্রামীণফোন সিমের এমবি অফার ২০২১)

গ্রামীণফোন বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ মোবাইল নেটওয়ার্ক। মোবাইল ফোনের সাথে যুক্ত সবচেয়ে বেশি সিম রয়েছে গ্রামীণফোনের। গ্রাহকের সংখ্যার দিক থেকে জিপি সবচেয়ে এগিয়ে। এছাড়াও এদের শক্তিশালী নেটওয়ার্ক সারা দেশে বিস্তৃত। সে কারণেই অন্যান্য অপারেটরদের টপকে শীর্ষে অবস্থান করছে জিপি।

জিপি ইন্টারনেট

গ্রামীনফোনের ইন্টারনেট এর স্পীড চমৎকার। দ্রুতগতির ইন্টারনেট এর কারণেই অধিকাংশ মানুষ জিপি ব্যবহার করে। তাছাড়া জিবি ব্যবহারের আর কোনো বড় কারন নাই। কারণ হিসেবে আমরা বলতে পারি জিপিতে ইন্টারনেট এর দাম অনেক বেশি।

সেই তুলনায় বাংলাদেশের অন্যান্য সার্ভিস প্রোভাইডারদের ইন্টারনেট সেবার মান নিম্ন হলেও দাম খুবই সীমিত। তবে বর্তমানে আস্তে আস্তে মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য রবি এবং এয়ারটেল এর দিকে ঝুঁকছে।

এর প্রধান কারণ ইন্টারনেট প্যাকেজের সীমাহীন দাম। আর গ্রামীণফোন যখন ইচ্ছা তখন ইন্টারনেটের দাম বাড়িয়ে দেয়।

গ্রামীণফোন ইন্টারনেট প্যাকেজের দাম এর অনেক বেশি এই ধারণা ভাঙ্গাতে তারা স্কিটো নিয়ে আসে। প্রথমের দিকে স্কিটো সিমে ইন্টারনেটের দাম খুবই সীমিত রাখা হয়। কিন্তু গ্রাহক বাড়ার সাথে সাথেই এক্ষেত্রেও গ্রামীণফোনের ভন্ডামি স্পষ্ট হয়।

কারণ পূর্বে ১০ টাকায় ১ জিবি ইন্টারনেট পাওয়া যেত। আস্তে আস্তে দাম বাড়তে বাড়তে বর্তমানে তা ৩০ টাকা। এছাড়াও স্কিটো সিমের অন্যান্য বড় প্যাকেজ গুলোর দাম বেড়েছে বহুগুণে।

এ কারণেই মানুষের বিশ্বাস গ্রামীণফোনের উপর থেকে উঠে গেছে। এক্ষেত্রে আমরা যদি গ্রামীণফোনের প্রতিযোগিতার দিকে খেয়াল করি তাহলে দেখব তারা প্রতিটা ইন্টারনেট প্যাকেজের দাম কমিয়েছে।

এখন যদি রবি এবং এয়ারটেল নেটওয়ার্ক কাভারেজ ঠিকমতো দিতে পারে তাহলে বাংলাদেশের বাজারে ইন্টারনেটের দিক দিয়ে গ্রামীণফোনের একচ্ছত্র আধিপত্য হারিয়ে যাবে।

যাই হোক আমাদের আজকের আলোচ্য বিষয় জিপি সিমের ইন্টারনেট প্যাকেজ। তাহলে চলুন গ্রামীনফোনের বিভিন্ন ইন্টারনেট অফার সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

১১৪ টাকায় ৪জিবি সাথে ১জিবি বোনাস

সবচেয়ে আকর্ষণীয় এই ইন্টারনেট প্যাকেজের মেয়াদ ৭ দিন। এই প্যাকেজটিতে আপনি ৪ জিবি ইন্টারনেট এর সাথে আরও ১ জিবি ফ্রী পাবেন। গ্রামীণফোনের যে কোন নেটওয়ার্ক কাভারেজ থেকে এই ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে। তবে বোনাস ১ জিবি ব্যবহারের জন্য ৪জি কানেকশন লাগবে।

আকর্ষণীয় এই ইন্টারনেট প্যাকেজ এক্টিভেট করতে 114 টাকা রিচার্জ করতে হবে।

এছাড়াও আপনি ইউএসএসডি কোড ডায়াল করার মাধ্যমে প্যাকেজটি চালু করতে পারবেন।

কিংবা মাই জিপি এপ ভিজিট করেও এই অফারটি নেওয়া যাবে।

ইন্টারনেট প্যাকেজটি চালু করার জন্য ডায়াল করুন *121*3344#

ইন্টারনেট ডাটার মেয়াদ এবং পরিমাপ জানতে ডায়াল করুন *121*1*4#

৭৬ টাকায় ৩ জিবি সাথে ১.৫ জিবি বোনাস

মাই জিপি অ্যাপ এ ৩ জিবি ইন্টারনেট কিনলে ১.৫ জিবি ইন্টারনেট ফ্রি পাবেন। এজন্য আপনার খরচ হবে 76 টাকা। উক্ত ইন্টারনেট প্যাকেজের মেয়াদ থাকবে তিন দিন। প্যাকেজ কেনার জন্য মাই জিপি এপ ভিজিট করতে হবে। কোড ডায়াল করে বা ফ্লেক্সিলোড রিচার্জের মাধ্যমে এই প্যাকেজ এক্টিভেট করা যাবে না।

অব্যবহৃত ইন্টারনেট এর পরিমাপ এবং মেয়াদ জানতে ডায়াল করুন *121*1*4#

৫৭ টাকায় ২.৫ জিবি ৩ দিন

57 টাকা রিচার্জে আপনি ২.৫ জিবি ইন্টারনেট পাবেন তিন দিন মেয়াদে। ইন্টারনেট প্যাকেজটি ফ্লেক্সিলোড করার মাধ্যমে এক্টিভেট করা যাবে। এছাড়াও my gp app ভিসিট করার মাধ্যমেও এক্টিভেট করতে পারবেন। অথবা আপনার মোবাইল থেকে একটি কোড ডায়াল করেও চালু করা যাবে এই প্যাকেজটি।

*121*3242# ডায়াল করলে চালু হয়ে যাবে এই প্যাকেজ। ইন্টারনেট প্যাকেজের মেয়াদ জানতে ডায়াল করুন *121*1*4#

৪৬ টাকা ১ জিবি ৩ দিন

*121*3399# ডায়াল করার মাধ্যমে চালু করতে পারবেন 46 টাকায় 1 জিবি ইন্টারনেট তিন দিন মেয়াদের জন্য। এছাড়াও ফ্লেক্সিলোড হতে 40 টাকা রিচার্জের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু করা যাবে এই প্যাকেজটি। আরো বিস্তারিত জানার জন্য ভিজিট করতে পারেন গ্রামীনফোনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট।

২৯৯ টাকা ৫ জিবি ৩০ দিন

299 টাকা রিচার্জ করে আপনি ৫ জিবি ইন্টারনেট কিনতে পারবেন আপনার জিপি সিমে। এই ইন্টারনেট প্যাকেজের মেয়াদ থাকবে 30 দিন। এই প্যাকেজটি আপনি যেকোনো সময় বন্ধ করতে পারবেন। প্যাকেজটি বন্ধ করতে চাইলে ডায়াল করতে হবে *121*3041#

প্যাকেজটি অ্যাক্টিভেশন করার জন্য ডায়াল করুন *121*3458#

মাই জিপি অ্যাপ থেকেও ইন্টারনেট প্যাকেজটি চালু করা যাবে।

ইন্টারনেট ব্যালেন্স এর মেয়াদ জানার জন্য ডায়াল করুন *121*1*4#

১৫ জিবি ৩৯৮ টাকা ৩০ দিন

398 টাকা দিয়ে গ্রামীণফোন সিমে 15 জিবি ইন্টারনেট কিনতে পারবেন 30 দিন মেয়াদের জন্য। এই ইন্টারনেট প্যাকেজ টি চালু থাকলে আপনি যেকোন ওয়েবসাইট ইচ্ছামত ভিজিট করতে পারবেন।

ইউটিউব এবং ফেসবুকের ভিডিও দেখার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত এই প্যাকেজটি। প্যাকেজটি 3 উপায়ে চালু করা যাবে। প্রথমত আপনি ফ্লেক্সিলোড হতে ঠিক 398 টাকা রিচার্জ করলে অটোমেটিক চালু হয়ে যাবে এই প্যাকেজ।

এছাড়াও আপনি ফ্লেক্সিপ্লান থেকে প্যাকেজটি তৈরি করতে পারবেন। ইউএসএসডি কোড ডায়াল করার মাধ্যমেও চালু করা যাবে এই ইন্টারনেট প্যাকেজ। অব্যবহৃত ইন্টারনেট ব্যালেন্স এর মেয়াদ ও পরিমাপ জানার জন্য ডায়াল করুন *121*1*4#

জিপি ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক করার কোড

আপনারা অনেক ভাবে গ্রামীণফোন ইন্টারনেট ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। সবচেয়ে সহজ উপায় হলো মাই জিপি অ্যাপ থেকে ব্যালেন্স চেক করা। আপনার মোবাইলে যদি অ্যাপটি ইন্সটল করা না থাকে সে ক্ষেত্রে ইউএসএসডি কোড ডায়াল করার মাধ্যমে আপনার ইন্টারনেট ব্যালেন্স জানতে পারবেন কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে। আপনার অব্যবহৃত ইন্টারনেট প্যাকেজ এর পরিমাপ এবং মেয়াদ জানতে ডায়াল করুন *১২১*১*৪#

জিপি ইন্টারনেট প্যাকেজের মূল্য

জিপি ইন্টারনেট প্যাকেজের মূল্য সম্পর্কে কিছু বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। প্রতিনিয়তই ইন্টারনেট প্যাকেজের দাম পরিবর্তিত হচ্ছে। কোন প্যাকেজের মূল্য হ্রাস পেলে গ্রামীণফোন তা নোটিশের মাধ্যমে গ্রাহকদের জানিয়ে দেয়।

সেজন্য আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত মূল্যের সাথে গ্রামীণফোন ইন্টারনেট প্যাকেজ এর মূল্যের তারতম্য হতে পারে। সে কারণে আমরা আপনাদের অনুরোধ করবো কোন ইন্টারনেট প্যাকেজ কেনার আগে অবশ্যই গ্রামীনফোনের অফিসের ওয়েবসাইট হতে বর্তমান মূল্য জেনে নেওয়া।

গ্রামীণফোন ইন্টারনেট সেটিং

কতকগুলো কারণে মেগাবাইট থাকার পরেও ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় না। কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে গেলে লেখা দেয় নো কানেকশন। ইন্টারনেট ডেটা থাকার পরেও এ সমস্যা হতে পারে। এখন আমরা কিভাবে এ সমস্যার সমাধান করা যায় সে সম্পর্কে আলোচনা করব।

ইন্টারনেট না চলার প্রথম যে কারণটা হতে পারে তা হলো আপনার মোবাইলের ঘড়ির সময় ঠিক না থাকা। অনেক সময় দেখা যায় মোবাইলের ব্যাটারি রিমুভ করে আবার লাগালে ঘড়ির সময় অটোমেটিক্যালি পরিবর্তন হয়ে যায়। ইন্টারনেট কানেকশন পাওয়ার জন্য সময় খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সে কারণেই বর্তমান সময়ের সাথে আপনার মোবাইলের ঘড়ির সময় মিলিয়ে নিন।

দ্বিতীয় যে কারণটা হতে পারে তা হলো আপনার ইন্টারনেট সেটিং ঠিক নেই। ইন্টারনেট সেটিং ঠিক না থাকলে কোন ভাবেই ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড হওয়া সম্ভব নয়।

এজন্য ইন্টারনেট সেটিং করতে হবে সঠিক ভাবে।

প্রথমে Sim Card & Mobile Network অপশনে ভিজিট করতে হবে সেটিং মেনু থেকে।

এরপর নির্বাচন করতে হবে Grameenphone

এবার আপনাকে একটি প্রোফাইল ক্রিয়েট করতে হবে। এটা Access Point Names অপশনের মধ্যে পাবেন।

এরপর আপনাকে নিচের তথ্যগুলো লিখতে হবে সঠিক ভাবে।

Name: GP

Apn: Internet

Proxy: Not Set

Port: Not Set

সবশেষে এটি সেভ করা লাগবে। এবং প্রাইমারি প্রোফাইল হিসেবে সিলেক্ট করে দেওয়া লাগবে। তাহলেই আশা করছি আপনার ইন্টারনেট কানেকশনের সমস্যা দূর হবে।

আমাদের লেখাটি মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য ধন্যবাদ। এরকম আরো তথ্যপূর্ণ লেখা পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button