হিলফুল ফুজুল শব্দের অর্থ কি? হিলফুল ফুজুল নামক সংঘ কে কত সালে প্রতিষ্ঠা করেন?

হিলফুল ফুজুল শব্দের অর্থ কি? হিলফুল ফুজুল নামক সংঘ কে কত সালে প্রতিষ্ঠা করেন?

যখন আমাদের সর্বশেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) জন্মগ্রহণ করেন তখন দেখেন যে আরবের অবস্থা খুবই শোচনীয়। তিনি এখানকার পরিস্থিতি আরও খারাপ বুঝতে পারলেন যখন তার বিবেক বুদ্ধি জাগ্রত হল এবং তিনি এই সকল অবস্থা থেকে সবসময় মনে প্রানে কষ্ট পেতেন। তাই আরবের সকল মানুষের জীবনের সুখ শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য এবং সকল ধরনের অনাচার এবং অবিচার দূর করার জন্য সমাজের ভেতরে একটি শান্তি সংঘ প্রতিষ্ঠা করার প্রয়োজন হল। যেখানে নিপীড়িত মানুষেরা এসে সাহায্যগ্রহণ করবে এবং এই সংগঠনের বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ সে সকল মানুষদের সাহায্য প্রদান করে সকলের মাঝে সমতা ফিরিয়ে আনবে।

যাইহোক আপনারা যারা আজকে আমাদের ওয়েবসাইটে হিলফুল ফুজুল শব্দের অর্থ জানতে এসেছেন তারা আজকে এই শব্দের অর্থ জেনে নিবেন এবং এটি আসলে কি এবং কেন প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে তা জেনে নিতে পারবেন। যদি হিলফুল ফুজুল শব্দের অর্থ প্রথমে প্রদান করতে চাই তাহলে আমাদেরকে বলতে হবে যে এটির শব্দের অর্থ হলো শান্তি সংঘ। অর্থাৎ হিলফুল ফুজুল হল এমন এক ধরনের সংঘ যেখানে সকলের শান্তির ব্যবস্থা করার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয় এবং সেই অনুযায়ী কাজ করা হয়।

এই সংঘ প্রতিষ্ঠা করা হয় আমাদের প্রিয় নবীর জন্মগ্রহণের ২০ বছর পরে অর্থাৎ ৫৯০ হিজরী সনে। আমাদের রাসূল (সাঃ) এটি প্রতিষ্ঠা করেছেন যাদের সমাজের মানুষের ভেতরে কল্যাণ চলে আসে এবং সকলেই অর্থ কষ্ট অথবা খাবারের কষ্ট থেকে মুক্তি পেয়ে খুব সুন্দর জীবন যাপন করতে পারে। তাছাড়া এই হিলফুল ফুজুল প্রতিষ্ঠা করার পেছনে বেশ কয়েকটি উদ্দেশ্য ছিল এবং সেই উদ্দেশ্যের ভেতরে প্রধান উদ্দেশ্য হল যারা মজলুমদের প্রতি এবং অসহায়দের প্রতি অত্যাচার করে তাদেরকে সাহায্য করা।

সমাজের ভেতরে যে সকল বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে সে সকল বিশৃঙ্খলা দূর করার জন্য শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার উদ্দেশ্যে যে সকল পন্থা অবলম্বন করলে ভালো হয় সেগুলো অনুসরণ করা। বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভিন্ন সময়ে যে ধরনের দাঙ্গা হাঙ্গামা লেগে থাকলে সেগুলো দূর করে সকলের মধ্যে মৈত্রী এবং প্রীতি সম্পর্ক স্থাপন করা।

তাছাড়া যে সকল মানুষ দূর দূরান্ত থেকে আরবের রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করেছে অথবা পথিক ও মুসাফির হিসেবে চলাফেরা করেছে তাদের জানমালের নিরাপত্তা প্রদান করা ছিল এটির গুরুত্বপূর্ণ একটা উদ্দেশ্য। মক্কা পবিত্র স্থান হিসেবে এই স্থানে যাতে কোন জালেম প্রবেশ না করতে পারে তার ব্যবস্থা করা একটা উদ্দেশ্য ছিল। এ সকল গুরুত্বপূর্ণ উদ্দেশ্য নিয়ে হিলফুল ফুজুল প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং তা সকল যুগের এবং সর্বকালের যে কোন সংঘের জন্য অনুসরণীয় এবং অনুকরণীয়।
Write to Shahriar.1 Content

About শাহরিয়ার হোসেন 4780 Articles
Shahriar1.com ওয়েবসাইটে আপনার দৈনন্দিন জীবনের প্রয়োজনীয় যা কিছু দরকার সবকিছুই পাবেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*