প্রেমিকাকে পটানোর/ইমপ্রেস করার কবিতা – ভালবাসার রোমান্টিক কবিতা

আপনি কি প্রেমিকাকে পটানোর বা ইমপ্রেস করার জন্য কবিতা খুঁজছেন? তাহলে এখান থেকে ভালোবাসার রোমান্টিক কবিতা সংগ্রহ করতে পারবেন। আমাদের ওয়েবসাইটে সকল ধরনের ভালোবাসার কবিতা পাওয়া যায়।

এসব কবিতা ব্যবহার করে আমাদের অনেক পাঠক তাদের ভালোবাসা জীবনে সফল হয়েছেন। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস আমাদের লেখা পড়ার মাধ্যমে আপনি যদি সঠিকভাবে নিজেকে উপস্থাপন করতে পারেন তাহলে খুব সহজেই একটি মেয়েকে আপন করে পেতে পারেন। তাহলে কথা না বাড়িয়ে চলুন একটা ভালোবাসার রোমান্টিক কবিতা দেখে নেয়া যাক।

ভালোবাসার রোমান্টিক কবিতা

হার পাওয়ার প্রজেক্ট ট্রেনিং বিনামূল্যে মেয়েদের আউটসোর্সিং বিষয়ে ট্রেনিং কারা পাবে, কবে শুরু হবে, কিভাবে করতে হবে

মে ১৪, ২০১৭ তারিখে রচিত

আমার স্বপ্নে দেখা প্রেয়সী
—- গাজিবর রহমান

তুমি আমার স্বপ্নে দেখা প্রেয়সী
কত রূপেই না, তুমি রূপসী।।
তুমি সুন্দর থেকে সুন্দরীনি
ওগো, আমার সুকেশীনি।।
ওই পটল চেরা দেখে চোখ
করে বুক ধুক ধুক।।
তুমি, আমার সুরধুনী
তুমি, আমার রাজনন্দিনী।।
তোমার ভীরু ভীরু দু’টি সপ্তচন্দ্র ঠোঁট
তুমি দেখিতে হৃষ্টপুষ্ট।।
তুমি সুহাসিনী, তুমি সুদন্তা
সুন্দরী, কেবা তোমার জন্মদাতা।।
ওগো আমার লীলাবতী ললনা
তুমি, আমায় একটিবার বলনা।।
আমি, তোমায় ভালবাসি
দীপ্তি ছড়াক, তোমার মুখে পুষ্পঝরা হাসি।।
তুমি, আমার ভালবাসার স্রোতস্বিনী
তুমি, আমার প্রেমের তরনী।।
ওরে আমার তারকারাজ, আমার শতদল
আমার পিরীতি হবেনা বিফল।।
তুমি, আমার বসন্তদূত, এই মোর বাসনা
তোমায় নিয়ে করি আমি গবেষণা ।।
তোমার ওই কুন্তল তলে, আছে মোর প্রেম
আমি, তোমার বৃন্দাবনের শ্যাম।।
ওরে আমার অক্ষি
ওরে আমার পক্ষী।।
তুমি আমার কুক্ষি
তুমি আমার গৃহলক্ষ্ণী।।
হায়–হায়-হায়, আমার প্রেমের লীলা রথ
গভীর ভালবাসি আমি, এই করি শপথ।।
আমার প্রেমের সবিতা, কবিতা তটিনীর বেলাভুমি
তুমি, আমার তারাপতি, প্রীতির ঊর্মি।।
আমি, তোমার নবযৌবনপ্রাপ্ত ভালবাসার বৈজযন্তী
আমি, তোমার প্রেমরাজ্যের মহীপতি।।
তুমি, আমার গোলাপের কলি
আমার প্রাণের বুলবুলির বুলি।।
আমার ভালবাসার কাদম্বিনী
একদিন হবে তুমি, মোর সহধর্মিণী।।
তুমি মোর ভুমির ভুমিকা, রূপের কলাপী
আমি মধুমক্ষিকা, তুমি তামরস
আমায় করেছ তুমি, ভালবাসায় বস।।
তুমি, তোমার তুলনা
আমায় কভু ভুলনা।।
তুমি, আমার দর্পন, তুমি আমার দর্শন
তুমি, আমার গর্ব, তাই করি বার বার স্মরণ।।
তুমি, আমার আত্মার, জীবাত্মা
তুমি’ই, আমার পরমাত্মা।।
তুমি যখন দাও আমায়, ভালবাসার মালিশ
তোমার আদর পেয়ে ধরে দুই চোখে আলিশ।।
ওরে আমার মধুমালা, এসো তুমি কিরণমালা
তোমার গলায় দেব আমি, বেলীফুলের মালা।।
ওরে আমার দিনমণি, সোনার মত সোনামনি
তুমি, আমার মনি মুক্তা, তুমি’ই আমার সোনার খনি।।
অসাধারণ তুমি মেয়ে, দাও প্রেমের ধাক্কা
মাঝে মধ্যে মনে হয় পাব বুঝি অক্কা।।
তোমার প্রেমের কলেবরের আত্মাশ্লাঘার আমি করি
তোমার জন্য বানিয়ে রেখেছি, আমার প্রেমের শিখরী।।
তুমি, আমার ভরণী তরী, যেন প্রেম মেঘমালা
তোমার প্রেম পুষ্পরস পান করিতে লাগে রঙ্গ
তোমার প্রেম জ্বালা মনে হয় বিষাক্ত ভূজঙ্গ।।
চরণ দু’খানা ধোয়ায়ে দেব, আমি নিশাজল দিয়ে
সকল জ্বালা সয়ে আমি, তোমায় করব বিয়ে।।
তোমার অঙ্গের অক্ষর যেন, পাকা রম্ভা
বিকেল বেলা অভিভাবকদের বসবে বিয়ের সভা।।

উৎসর্গঃ এটা পড়ে যে মুচকি মুচকি হাসছে, তার উদ্দেশ্যে রচিত। :p :p :p
আমার কাছে তার রূপের বর্ণনা শুনে কবি, তার কবিতার ভাষায় প্রকাশ করেছে।
ধন্যবাদ প্রিয় কবিকে এতসুন্দর উপহার দেওয়ার জন্য।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button