জেলা ভিত্তিক সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২১

বাংলাদেশ একটি মুসলিম প্রধান দেশ। এদেশে অনেক মুসলমান বসবাস করায় রমজান মাস খুব আনন্দের সঙ্গে পালন করে থাকে। কারণ রমজান মাস সকল পাপ পঙ্কিলতা থেকে দূরে থাকার মাস। এই মাসে মানুষ নিজেকে সকল ধরনের পাপ কাজ থেকে দূরে রাখে। নিজেকে আল্লাহর কাজ করার জন্য সঁপে দেয়।

আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য প্রতিটা মানুষ সিয়াম সাধনা করে এবং পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে। তাহলে এই সিয়াম সাধনার জন্য একজন রোজাদার ব্যক্তির অবশ্যই সেহরি ইফতারের সময়সূচি জানাটা খুব জরুরি। এই সেহরী এবং ইফতারের সময়সূচি জানতে হলে আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে জানতে পারবেন।

Click on download button to download the Ramadan calendar 2021 PDF.

আমাদের ওয়েবসাইটে প্রতিটি জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২২ দেওয়া আছে এবং বুঝিয়েও দেওয়া আছে। আপনারা যদি বিভিন্ন জেলার বা যে জেলারই হোন না কেন সেই জেলার নাম উল্লেখ করে আমাদের সার্চ অপশনে গিয়ে সার্চ করেন। তাহলে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।

জেলাভিত্তিক ইফতার ও সেহরির শেষ সময় ২০২১

আপনি হয়তো চট্টগ্রাম জেলায় বসবাস করেন। কিন্তু আপনার হাতে ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর একটি ক্যালেন্ডার রয়েছে। যে ক্যালেন্ডারটি চলমান বছরের রমজান মাসকে কেন্দ্র করে তৈরি করা। কিন্তু ঢাকার সাথে মিল রেখে সেই ক্যালেন্ডার তৈরি করা হয়। ফলে আপনার জেলা চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা সময় মিলবে না।

কারণ ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে আপনার জেলা এবং ঢাকা জেলার মধ্যে অবশ্যই পার্থক্য থাকবে সময়ে। তার জন্য আপনারা কিছুটা সময় বাড়িয়ে বা কমিয়ে নিতে পারেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে প্রতিবছর এর জন্য জেলা ভিত্তিক কিছুটা সময় পরিবর্তন করা হয়ে থাকে। কারণ একেক জেলায় একেক সময় সূর্য উদয় হয় এবং সূর্য অস্ত যায়। তার জন্য সময়ের এই পরিবর্তন হয়।

তাই আপনি যে জায়গাতে বসবাস করেন না কেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দেওয়া তথ্যমতে আপনার জেলার সময় বাড়িয়ে বা কমিয়ে নিন। এক্ষেত্রে আপনাদের সেহরী এবং ইফতারের সময় বাড়াতে হবে বা কমাতে হবে। আপনারা যদি প্রতিদিনের সময়ের সাথে এভাবে সময় বাড়িয়ে নিতে পারেন বা কমিয়ে নিতে পারেন, তাহলে আপনার নিজ জেলার সময় সম্পর্কে সম্যক ধারনা পাবেন।

Sehri & Iftar Time Ramadan Calendar 2020 PDF Download (Bangladesh Islamic Foundation)

তাই প্রতিটি জেলার সেহরি এবং ইফতারের সময়সূচী এবং শেষ সময় ২০২১ আপনারা জেনে নিন। এতে আপনাদের মাহে রমজান পালন করা ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। আর সেই সময় অনুযায়ী আপনারা কাজ শেষে নিজের সেহরী এবং ইফতারের উপস্থিত হতে পারবেন।

শাহরিয়ার হোসেন

শাহরিয়ার হোসেন একজন ক্ষুদ্র ব্লগার। লিখতে খুব ভালোবাসেন। অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগে ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে লিখছেন। কাজের চেয়ে নিজের নাম প্রচারের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন। সে চিন্তা থেকেই এই ব্লগের উৎপত্তি। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স কমপ্লিট করেছেন। বর্তমানে একই বিভাগে মাস্টার্স এ অধ্যায়নরত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button